প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

ছুটি বাতিল করে সর্বোচ্চ সতর্ক অবস্থায় ফায়ার সার্ভিস
প্রতিটি পুলিশ লাইন্সে প্রস্তুত এক প্লাটুন ‘কুইক রেসপন্স টিম’

সুজন কৈরী : ঘূর্ণিঝড় ‘বুলবুল’ মোকাবিলায় সর্বোচ্চ প্রস্তুতি গ্রহণ করেছে ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স অধিদফতর। ছুটি বাতিল করে সংশ্লিষ্ট এলাকায় কর্মরত সব কর্মকর্তা-কর্মচারীকে স্ট্যান্ডবাই রাখা হয়েছে। এছাড়া ‘বুলবুল’ মোকাবেলায় প্রত্যেক জেলার পুলিশ সুপার কার্যালয়ে ডিএসবির তত্ত্বাবধানে কন্ট্রোল রুম খোলা হয়েছে। সেইসঙ্গে প্রত্যেক থানাতেও কন্ট্রোল রুম এবং প্রতিটি পুলিশ লাইন্সে এক প্লাটুন কিউআরটি ফোর্স (কুইক রেসপন্স টিম) প্রস্তুত রাখা হয়েছে।

ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স অধিদফতরের মিডিয়া সেলের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. শাহজাহান শিকদার জানান, ঘূর্ণিঝড় ‘বুলবুল’ মোকাবিলায় সংশ্লিষ্ট এলাকায় কর্মরত সব কর্মকর্তা-কর্মচারীর ছুটি বাতিল করে স্ট্যান্ডবাই রাখা হয়েছে। বিশেষ করে উপক‚লীয় জেলাগুলোতে প্রস্তুত রাখা হয়েছে ওয়াটার রেসকিউ টিম, ফাস্ট এইড টিম এবং সার্চ অ্যান্ড রেসকিউ টিম। তিনি বলেন, ঘূর্ণিঝড়ের যাবতীয় খবরাখবর সংগ্রহ ও সার্বক্ষণিক যোগাযোগের জন্য ফায়ার সার্ভিসের পক্ষ থেকে ৪টি স্বতন্ত্র নিয়ন্ত্রণ কক্ষ খোলা হয়েছে। নিয়ন্ত্রণ কক্ষগুলোর ঢাকা-০২-৯৫৫৬৭৫৪, ০১৭১৩-০৩৮১৮১, চট্টগ্রাম- ০১৭৩০-৩৩৬৬৬৬, খুলনা- ০১৭৩৩-০৬২২০৯ এবং বরিশাল- ০১৯৮৩-৮৮৬৬৭৭ ফোন নম্বরে যোগাযোগের জন্য অনুরোধ জানানো হয়েছে।

এদিকে পুলিশ সদর দফতরের এআইজি (মিডিয়া এন্ড পিআর) মো. সোহেল রানা জানান, ঘূর্ণিঝড় মোকাবেলায় প্রত্যেক জেলা পুলিশের কার্যালয়ে ডিএসবির তত্ত্বাবধানে কন্ট্রোল রুম খোলা হয়েছে। প্রত্যেক থানায়ও কন্ট্রোল রুম খোলা হয়েছে। প্রতিটি পুলিশ লাইন্সে এক প্লাটুন কুইক রেসপন্স টিম হিসেবে রাখা হয়েছে। ওয়ার্ড মেম্বার, ইউপি চেয়ারম্যান, পৌর মেয়র, উপজেলা চেয়ারম্যানসহ এলাকার নেতৃস্থানীয় ব্যক্তিদের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট ওসিসহ সিনিয়র অফিসারদের সার্বক্ষণিক যোগাযোগ অব্যাহত রয়েছে। এছাড়াও প্রতিটি জেলার পুলিশ সুপারসহ প্রশাসনের সহযোগিতা নেয়ার জন্য পরামর্শ দেয়া হচ্ছে। তিনি আরো বলেন, পুলিশ সদর দফতরও কন্ট্রোল রুম স্থাপন করেছে। কন্ট্রোল রুমে ০১৭৬৯-৬৯০০৩৩, ০১৭৬৯-৬৯০০৩৪ নম্বরে এবং জাতীয় জরুরি সেবা ৯৯৯-এ যোগাযোগের জন্য অনুরোধ জানানো হয়েছে।

শনিবার সন্ধ্যা নাগাদ বুলবুল পশ্চিমবঙ্গ ও খুলনা উপকূল দিয়ে সমতলে আঘাত হানার সম্ভাবনা রয়েছে। এ সময় বাতাসের সর্বোচ্চ গতিবেগ থাকবে ঘণ্টায় ১০০ থেকে ১২০ কিলোমিটার।

বাংলাদেশ আবহাওয়া অধিদফতর থেকে মোংলা ও পায়রা সমুদ্র বন্দরকে ১০ মহাবিপদ সংকেত দেখিয়ে যেতে বলা হয়েছে। উপক‚লীয় জেলা ভোলা, বরগুনা, পটুয়াখালী, বরিশাল, পিরোজপুর, ঝালকাঠি, বাগেরহাট, খুলনা, সাতক্ষীরা এবং তাদের অদূরবর্তী দ্বীপ ও চরগুলো ১০ নম্বর মহাবিপদ সংকেতের আওতায় থাকবে।

চট্টগ্রাম সমুদ্র বন্দরকে ৬ নম্বর বিপদ সংকেত নামিয়ে তার পরিবর্তে ৯ নম্বর মহাবিপদ সংকেত দেখাতে বলা হয়েছে। উপক‚লীয় জেলা চট্টগ্রাম, নোয়াখালী, ল²ীপুর, ফেনী, চাঁদপুর এবং তাদের অদূরবর্তী দ্বীপ ও চরগুলো ৯ নম্বর মহাবিপদ সংকেতের আওতায় থাকবে। এছাড়া কক্সবাজার সমুদ্র বন্দরকে ৪ নম্বর স্থানীয় হুঁশিয়ারি সংকেত দেখিয়ে যেতে বলা হয়েছে।

সর্বাধিক পঠিত