প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

বাবরি মসজিদ রায় নিয়ে ভারত বর্ষে যাতে শান্তি থাকে সেটিই আশা করে বাংলাদেশ, বললেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী

তরিকুল ইসলাম : বাবরি মসজিদ-রাম মন্দির বিতর্কে ভেঙে ফেলা মসজিদের জায়গায় মন্দির বানানোর পক্ষেই রায় দিয়েছে ভারতের সুপ্রিম কোর্ট। এ নিয়ে একান্ত আলাপচারিতায় পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আবদুল মোমেন বলেছেন, বাবরি মসজিদ রায় নিয়ে ভারত বর্ষে যাতে শান্তি থাকে সেটিই আশাকরে বাংলাদেশ। আমি আশা করবো, তাদের ওখানে সম্প্রীতি বজায় থাকবে।

এ বিষয়ে আমি এখনই কিছু বলতে পারছিনা। কারণ, আমি রায়ের বিষয়ে বিস্তারিত কিছু দেখিনি। বাংলাদেশে আমরা সম্প্রীতি সমঝোতার মধ্য থাকি। এখানে মুসলিম, হিন্দু ও খ্রিস্টান সবাইকে নিয়েই আমাদের থাকতে হয়। আমাদের দেশের মানুষের যে সংস্কৃতি তৈরি হয়েছে তাতে এ নিয়ে কোনো উসৃঙ্খলা এখানে সৃষ্টি হবেনা বলেই আশা করি।

শনিবার “সাউথ এশিয়ান কারাতে চ্যাম্পিয়নশিপ -২০১৯” এ যোগ দেওয়ার পরে একান্ত আলাপচারিতায় আমাদের নতুন সময়কে এসব কথা বলেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী।

তার আগে “সাউথ এশিয়ান কারাতে চ্যাম্পিয়নশিপ -২০১৯” এ প্রধান অতিথির বক্তব্য ড. মোমেন বলেন, এটি খুবই খুশীর খবর দক্ষিণ এশিয়ার অংশগ্রহণকারী ২৮০ জনের মধ্য ৭০ জনই বাংলাদেশের।বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী সকল ধরণের খেলাকে সমর্থন দিয়ে যাচ্ছেন।

খেলা-ধুলার মাধ্যমে একজনের সঙ্গে আর একজনের সম্পর্ক বৃদ্ধি পায় এবং মানুষের মধ্যে সহনশীলতা সৃষ্টি হয়।এর ফলে সমাজে তথা আন্তর্জাতিক পরিমণ্ডলে শান্তির আবহ তৈরি হয় যা স্থিতিশীলতা আনে।

পররাষ্ট্র মন্ত্রী বলেন, কারাতে একটি দারুন উপভোগ্য খেলা।তরুণ প্রজন্ম কারাতে মতো খেলা ধুলার সঙ্গে যুক্ত থাকেলে ইভটিজিংয়ের মতো বিষয়গুলো কমে আসবে।সাউথ এশিয়ান কারাতের আগামী দিনগুলো আরও সমৃদ্ধ পূর্ণ হবে বলেই আমি আশা করছি।

শহীদ তাজউদ্দীন আহমেদ ইনডোর স্টেডিয়ামে খেলার আয়োজন করে বংলাদেশ কারাতে ফেডারেশন।

বাংলাদেশ কারাতে ফেডারেশনের সভাপতি ড. মোজাম্মেল হক খান, যুুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. আক্তার হোসেন, সাউথ এশিয়ান কারাতে ফেডারেশনের সভাপতি ভারত শর্মা ও সাধারণ সম্পাদক মোয়াজ্জেম হোসেন সেন্টু অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন।এতে বাংলাদেশ, ভারত, নেপাল, ভূটান ও শ্রীলঙ্কা অংশ নেয়।

সর্বাধিক পঠিত