প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

তোমার মৃত্যুতে কেউ চোখের পানি ফেলবে না, মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতিচারণ করে বলেছিলেন বাদল

 

মহসীন কবির : মঈন উদ্দীন খান বাদল ১৯৭১ সালে মুক্তিযুদ্ধে বাঙালিদের ওপর আক্রমণের জন্য পাকিস্তান থেকে আনা অস্ত্র চট্টগ্রাম বন্দরে সোয়াত জাহাজ থেকে খালাসের সময় প্রতিরোধের অন্যতম নেতৃত্বদাতা ছিলেন বাদল। মুক্তিযুদ্ধ পরবর্তী সময়ে বাদল সমাজতান্ত্রিক রাজনীতির প্রতি আকৃষ্ট হন। রাজনৈতিক জীবনে জাসদ, বাসদ হয়ে পুনরায় জাসদে রাজনীতিতে আমৃত্যু সক্রিয় ছিলেন। তিনি ছিলেন জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল (জাসদ)-এর কার্যকরী সভাপতি। মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতিচারণ করে মঈন উদ্দীন খান বাদল বলেছিলেন, ভারতের জেনারেল সুজন সিংহবানের কাছে প্রশিক্ষণ নিয়েছিলাম আমরা। তিনি হেডকোয়ার্টার করেছিলেন রাঙামাটি। আমি আর প্রয়াত ছাত্রনেতা এসএম ইউসুফ তার কাছে গেলাম একদিন। তিনি বললেন, বাচ্চা ‘চা পিয়ো’(চা খাও)।

চা খেতে খেতে জেনারেল সুজন সিংহবানে বলছিলেন, দেখো নিজেকে এমনভাবে তৈরি করবে যেন যেকোনো পরিস্থিতিতে মৃত্যুকে আলিঙ্গন করার মানসিকতা থাকে। তবেই তুমি একজন ভালো যোদ্ধা হবে। তোমাকে প্রস্তুত থাকতে হবে। তোমার মৃত্যুতে কেউ চোখের পানি ফেলবে না। কেউ শোকবার্তা দেবে না।

এ রকম নীরবে যদি মরে যেতে পার, তবেই তুমি একজন আসল যোদ্ধা। সিংহবানের সেই নিদের্শনাটি তার কানে এখনও বাজে বলে জানিয়েছিলেন এমপি বাদল। মঈন উদ্দীন বাদল চট্টগ্রাম-৮ আসন থেকে তিনি নির্বাচিত জাতীয় সংসদ সদস্য। তিনি ২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারি তারিখে অনুষ্ঠিত দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সংসদ সদস্য হিসাবে নির্বাচিত হন। সংসদে অনলবর্ষী বক্তা হিসেবে তিনি খ্যাতি পান। আওয়ামী লীগের নেতৃত্বে ১৪ দল গঠনেও বাদলের ভূমিকা ছিলো। ৭ নভেম্বর মঈন উদ্দীন খান বাদল ভারতের ব্যাঙ্গালুরুর একটি হাসপাতালে ইন্তেকাল করেছেন।

সর্বাধিক পঠিত