প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

ব্যাংকে সুদহার কমেনি বরং বেড়েছে

নিউজ ডেস্ক : ব্যাংক ঋণের উচ্চ সুদকে বাংলাদেশে বিনিয়োগের বড় বাধা মনে করা হয়। বেশি সুদে টাকা নিয়ে ব্যবসায় টিকে থাকা কঠিন বলে আসছেন ব্যবসায়ীরা। এ কারণে সুদহার কমাতে ব্যাংকগুলোকে একের পর এক সুবিধা দিয়েছে সরকার ও কেন্দ্রীয় ব্যাংক। ব্যাংকের মুনাফার ওপর কর কমানো হয়েছে। কেন্দ্রীয় ব্যাংকে বাধ্যতামূলক নগদ জমা রাখার (সিআরআর) হার কমিয়ে দেওয়া হয়েছে। বেসরকারি ব্যাংকে সরকারি আমানত বাড়ানো হয়েছে। এসব সুবিধা দিয়েও সুদহার কমানো যায়নি, উল্টো বেড়েছে।

১ জুলাই থেকে এক অঙ্ক সুদে ঋণ বিতরণ করা হবে বলে ঘোষণা দেয়। এজন্য সরকারি আমানতের ৫০ শতাংশ বেসরকারি ব্যাংকে রাখার সুযোগ দেয় সরকার। এরপর কেন্দ্রীয় ব্যাংকে বিধিবদ্ধ নগদ জমা বা সিআরআর সংরক্ষণের হার সাড়ে ৬ শতাংশ থেকে কমিয়ে সাড়ে ৫ শতাংশ করা হয়। বাংলাদেশ ব্যাংক থেকে ধার নেওয়ার ‘রেপো’ সুদহার ৬ দশমিক ৭৫ শতাংশ থেকে ৬ শতাংশে নামানো হয়। এর আগের বছর করপোরেট কর আড়াই শতাংশ কমিয়ে সাড়ে ৩৭ শতাংশ করে সরকার। এসব সুবিধা দেওয়ার মূল উদ্দেশ্য ছিল, ব্যাংকগুলো এক অঙ্ক সুদে ঋণ বিতরণ করবে। এ ছাড়া ব্যাংকের উদ্যোক্তাদের দাবির মুখে গত বছর এক পরিবার থেকে চারজন পরিচালক এবং একজন পরিচালক টানা নয় বছর থাকার সুযোগ দিয়ে ব্যাংক কোম্পানি আইন সংশোধন করা হয়।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত