প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

ভারতে আরও ৪২ ব্যাংক জালিয়াতি ফাঁস, দুর্নীতির পরিমাণ ৭,২০০ কোটি টাকা, খেলাপি ঋণ ১০.৬৬ লাখ কোটি

রাশিদ রিয়াজ : প্রাথমিকভাবে ভারতের ১৫টি ব্যাংকে জালিয়াতির ঘটনা সামনে এসেছে। এই তালিকায় আছে দেশটির বৃহত্তম ব্যাংকিং সংস্থা ভারতীয় স্টেট ব্যাংক। যদিও এসবিআই-এর তরফে এই বিষয়ে কোনও প্রতিক্রিয়া পাওয়া যায়নি। অনাদায়ী ঋণের বোঝায় হাঁসফাঁস অবস্থা ভারতীয় ব্যাংকিং ক্ষেত্রের। এর মধ্যে ৪টি ক্ষেত্রে এক-একটিতে জালিয়াতির অংক ১০০ কোটি টাকার বেশি। মামলা দায়েরের মাধ্যমে অবিলম্বে এই ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা। এর অঙ্গ হিসেবে ইতোমধ্যে ১৮৭টি স্থানে হানা দিয়েছেন তদন্তকারীরা। অধিকাংস ক্ষেত্রে সংস্থার হিসেবের খাতায় কারচুপি বা ভুয়ো নথি দিয়ে ব্যাংককে প্রতারিত করা হয়েছে বলে জানা গিয়েছে।

অনদায়ী ঋণের থাবায় ভারতীয় ব্যাংকিং ক্ষেত্রের ন্যূহ্যমান অবস্থা। রাষ্ট্রায়ত্ত এবং বেসরকারি ব্যাংকগুলির মোট অনাদায়ী ঋণের পরিমাণ বাড়তে বাড়তে ১০.৬৬ লাখ কোটিতে গিয়ে ঠেকেছে। এর মধ্যে গত দু-বছরে একের পর এক ব্যাংক জালিয়াতির ঘটনা সামনে আসছে। গত মাসে পঞ্জাব অ্যান্ড মহারাষ্ট্র কো-অপারেটিভ ব্যাংকের জালিয়াতির বিষয়টি সামনে আসার পরে দেশজুড়ে তোলপাড় শুরু হয়। এই ব্যাংকের ক্ষেত্রে কারচুপি করে একমাত্র রিয়েল এস্টেট সংস্থাকে সমস্ত লোন দেওয়া হয়েছিল। তদন্তে জানা যায়, কমপক্ষে ২১,০০০টি ভুয়ো ব্যাংক অ্যাকাউন্ট তৈরি করে ওই রিয়েল এস্টেট সংস্থাকে বেআইনিভাবে বিপুল ঋণ দিয়েছিল পাঞ্জাব ব্যাংক।

সর্বাধিক পঠিত