প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

চেন্নাইতে ১৫ দিনের মেয়েকে জ্যান্ত পুঁতে ফেলল বর্বর বাবা, গ্রেফতার

রাশিদ রিয়াজ : ঘটনাটি ঘটেছে চেন্নাই থেকে ২০০ কিলোমিটার দূরে, তামিলনাড়ুর ভিল্লুপুরম জেলার অখ্যাত বড়ামুথুর গ্রামে। কন্যা সন্তানকে খুনের অভিযোগে ডি বরদরাজন (২৫) নামে ওই বর্বরকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। মেয়ের বাবা হয়ে মন থেকে এতটুকু খুশি হতে পারেননি। কারণ, মনেপ্রাণে তিনি চেয়েছিলেন পুত্র। তাই, শিশুর জন্মের পরেই ঠিক করে ফেলেন মেরে ফেলবেন। পরিকল্পনা মতো মঙ্গলবার একদম কাকভরে, সবার অলক্ষ্যে ১৫ দিনের মেয়েকে মাটি খুঁড়ে জ্যান্ত কবর দেন। যাতে কাকপক্ষীটি টের না পায়। কিন্তু, তার পরেও নিজের এই অপরাধ আড়াল করতে পারেননি। পুলিশের কানেও খবর চলে যায়। মঙ্গলবার বিকেলে ওই বর্বর বাবাকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। ঘটনাটি ঘটেছে চেন্নাই থেকে ২০০ কিলোমিটার দূরে, তামিলনাড়ুর ভিল্লুপুরম জেলার অখ্যাত বড়ামুথুর গ্রামে। কন্যা সন্তানকে খুনের অভিযোগে ডি বরদরাজন (২৫) নামে ওই বর্বরকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

২০১৮ সালের আগস্টে কে সৌন্দর্যের সঙ্গে বিয়ে হয় পেশায় শ্রমিক ডি বরদরাজনের। এই ২০ অক্টোবর কন্যা সন্তানের জন্ম দেন সৌন্দর্য। তার পরেই অশান্তির সূত্রপাত। প্রাথমিক তদন্তের পর পুলিশ জানায়, মেয়ের বাবা হয়ে খুশি হতে পারেননি বরদরাজন। মঙ্গলবার কাকভোরে ঘুমন্ত কন্যাকে সে মায়ের পাশ থেকে নিয়ে যায়। সৌন্দর্য গভীর ঘুমে আচ্ছন্ন থাকায়, বুঝতে পারেননি। মনের তীব্র অসন্তোষ থেকে বাড়ির অদূরে মেয়েকে জ্যান্ত অবস্থায় পুঁতে দেন বরদরাজন। হঠাত্‍‌ ঘুম ভাঙলে, মেয়েকে পাশে দেখতে পাননি সৌন্দর্য। মেয়েকে খুঁজে না পেয়ে, কান্নাকাটি শুরু করেন। সেসময় প্রতিবেশী ও স্বজনরা খোঁজাখুঁজি শুরু করেন। পরে, নদীর চরে মাটি চাপা দেওয়া অবস্থায় খুঁজে পান। এই সময়

সর্বাধিক পঠিত