প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

ভারতে ৫ বছরে বন্ধ হয়েছে রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাংকের ৩৪০০ শাখা

রাশিদ রিয়াজ : ভারতীয় রিজার্ভ ব্যাংক জানিয়েছে, ২০১৪-১৫ আর্থিক বছরে ৯০টি, ২০১৫-১৬ আর্থিক বছরে ১২৬টি, ২০১৬-১৭ আর্থিক বছরে ২৫৩টি, ২০১৭-১৮ আর্থিক বছরে ২০৮৩টি এবং ২০১৮-১৯ আর্থিক বছরে ৮৭৫টি রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাংকের শাখা বন্ধ অথবা মিশিয়ে (মার্জার) দেয়া হয়েছে। গত ৫ আৰ্থিক বছরে ২৬টি রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাংকের কমপক্ষে ৩,৪০০ শাখা হয় বন্ধ অথবা মিশিয়ে দেওয়া হয়েছে। ব্যাংকিং ক্ষেত্রে সংযুক্তিকরণ প্রক্রিয়ার অঙ্গ হিসেবে এই পদক্ষেপ করা হয়েছে। সংযুক্তিকরণ প্রক্রিয়ার জেরে গত ৫ আর্থিক বছরে সবথেকে বেশি প্রভাবিত হয়েছে এসবিআই-এর শাখাগুলি। তথ্য জানার অধিকারের আওতায় এই তথ্য সামনে এসেছে।

গত অর্ধ দশকে ভারতে রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাংকের যতগুলি শাখা বিলুপ্ত হয়েছে তার ৭৫ শতাংশ দেশের বৃহত্তম ব্যাংক স্টেট ব্যাংক অব ইন্ডিয়া এসবিআইএর। সমাজকর্মী চন্দ্রশেখর গৌরের করা একটি আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে ভারতীয় রিজার্ভ ব্যাংক এসব তথ্য জানিয়েছে। রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাংকগুলিকে শক্তিশালী করতে একটি বড় ব্যাংকের সঙ্গে একাধিক ছোট ব্যাংককে মিশিয়ে দেওয়ার নীতি নিয়েছে কেন্দ্র। তারই অঙ্গ হিসেবে ১০টি ব্যাংকে মিশিয়ে ৪টি বড় ব্যাংক গঠনের প্রক্রিয়া চলছি। এমন একটি সময়ে এই তথ্য সামনে এল।

প্রাপ্ত তথ্য অনুসারে, রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাংক সংযুক্তিকরণ প্রক্রিয়ার জেরে গত ৫ আর্থিক বছরে সবথেকে বেশি প্রভাবিত হয়েছে এসবিআই-এর শাখাগুলি। এই সময়ে শুধুমাত্র তাদের ২,৫৬৮টি শাখা হয় বন্ধ হয়ে গিয়েছে অথবা মিশে গিয়েছে অন্য কোনও শাখার সঙ্গে।

২০১৭ সালের ১ এপ্রিল থেকে SBI-এর সঙ্গে মিশে গিয়েছে মোট ছ-টি ব্যাংক। এগুলি হল: স্টেট ব্যাংক অফ বিকানের অ্যান্ড জয়পুর, স্টেট ব্যাংক অফ ত্রিবাঙ্কুর, স্টেট ব্যাংক অফ পাটিয়ালা, স্টেট ব্যাংক অফ মহিশূর, স্টেট ব্যাংক অফ হায়দরাবাদ এবং ভারতীয় মহিলা ব্যাংক। সেইসঙ্গে চলতি বছরের ১ এপ্রিল থেকে বিজয়া ব্যাংক, দেনা ব্যাংক এবং ব্যাংক অফ বরোদার সংযুক্তিকরণ কার্যকর হয়েছে। এই সময়

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত