প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

ইসলামপুরে ৬০তম স্ত্রীর মামলায় গ্রেফতার হলেন বক্কর

রাশিদ রিয়াজ : ভুয়া পরিচয়ে একের পর এক বিয়ে করতেন জামালপুর জেলার ইসলামপুর উপজেলার আবু বক্কর। বাদশা মিয়ার ছেলে আবু বক্কর এভাবে নামে ও বেনামে বিয়ের পর ৬০তম স্ত্রীর কাছে ধরা খেলেন। তার আসল বাড়ি সোভারচর গ্রামে। সর্বশেষ স্ত্রীর দায়ের করা মামলার পর সেখান থেকেই পুলিশ গ্রেফতার করে তাকে। ইউএনবি

পূর্বধলা থানার ওসি মোহাম্মদ তৌহিদুর রহমান জানান, গত শনিবার আবু বক্করকে ইসলামপুর থানা পুলিশ গ্রেফতার করে তাদের কাছে পাঠিয়েছে। তার সর্বশেষ স্ত্রী রোজি খানম নারী ও শিশু নির্যাতন প্রতিরোধ আইনে পূর্বধলা থানায় মামলা করেছিল। পুলিশের কাছে বক্কর জানায়, বিভিন্ন স্থানে সে একাধিক বিয়ে করলেও তার ৭ সন্তান ও দুই স্ত্রী গ্রামের বাড়িতে আছে। তবে অন্যান্য স্থানে বিয়ের করা সময় তার গ্রামের ঠিকানা ব্যবহার করেনি বক্কর। রোজি জানায় গরীব ও অসহায় মেয়েদের বিয়ে করার পাশাপাশি তাদের পরিবারের কাছ থেকে টাকা নিত।

গত আগস্টে এমএ ক্লাসের ছাত্রী রোজিকে বক্কর বিয়ে করে। তখন বক্কর নিজেকে অবিবাহিত ও ইনসেপ্টা ফার্মাসিউটিক্যালের জেলা এরিয়া ম্যানেজার হিসেবে পরিচয় দেয়। তবে বক্কর এসময় নিজেকে শাহিন আলম হিসেবে পরিচয় দেয়। বাবার নাম বলে আকরাম। এবং জামারপুরের বকশিগঞ্জের কুতুবপুর গ্রামে তাদের বাড়ি বলে জানায়। ২ লাখ টাকা যৌতুকও চায় বক্কর। বিয়ের পর শ^শুরবাড়িতে বাস করতে শুরু করে বক্কর এবং রোজির ভাইয়ের কাছ থেকে ৮০ হাজার টাকা নেয়। একটি ওষুধ কোম্পানিতে চাকরি পেতে এ টাকা প্রয়োজন বলে জানায় বক্কর।

সর্বাধিক পঠিত