প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

মার্কিন সামরিক অভিযানে আইএস শীর্ষ প্রধান আল বাগদাদি নিহত, ট্রাম্পের টুইট

রাশিদ রিয়াজ : এর আগেও আবু বকর আল-বাগদাদির মৃত্যুর খবর বেশ কয়েক দফা বিভিন্ন মিডিয়ায় প্রচার হয়েছে । আবার এও প্রচার হয়েছে বাগদাদি বহাল তবিয়তে বেঁচে আছেন।সর্বশেষ মার্কিন সামরিক অভিযানে বাগদাদি নিহত হয়েছেন এমন ইঙ্গিত দিয়ে দেশটির স্থানীয় সময় শনিবার রাতে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প তার টুইটে লেখেন ‘এইমাত্র খুব বড় একটা ঘটনা ঘটল।’ তবে সিএনএন বলছে ডিএনএ ও বায়োমেট্রিক পরীক্ষা শেষে এব্যাপারে চূড়ান্ত ঘোষণা দেয়া হবে। অভিযানের সময় বাগদাদি তার সুইসাইড ভেস্টে বিস্ফোরণ ঘটান। যুক্তরাষ্ট্রের স্পেশাল কমাণ্ডোরা তাকে নিবৃত্ত বা জ্যান্ত ধরতে পারেনি। এর আগে সিআইএ বাগদাদির গোপন অবস্থান নিশ্চিত করে। নিউজউইক সবার আগে বাগদাদির মৃত্যুর খবর প্রচার করে।

ডেইলি স্টার ইউকে’র প্রতিবেদনে বলা হয়, বাগদাদি ছাড়াও তার দুই স্ত্রীও বিস্ফোরণ ঘটিয়ে মারা যান। তবে তাদের সন্তানরা মার্কিন বিশেষ কমাণ্ডোর হেফাজতে রয়েছে। তাদের সংখ্যা কত তা এখনো জানা যায়নি। বাগদাদির বয়স হয়েছিল ৪৮ বছর। ২০০৩ সালে বাগদাদি ইরাকে হামলার সময় বিদ্রোহ করে। এরপর তাকে আটক করে আবু গারিব ও ক্যাম্প বুকায় অন্যান্য সন্ত্রাসীদের সঙ্গে পাঠানো হয়। এরপর সেখান থেকে পালিয়ে বাগদাদি আইএসএস জঙ্গি গোষ্ঠী গড়ে ইরাকের মসুল শহর থেকে খিলাফতের ঘোষণা দেন।

এদিকে রুশ বার্তা সংস্থা স্পুটনিক ইন্টারন্যাশনাল বলছে, ইরাকি গোয়েন্দারা মার্কিন বিশেষ কমাণ্ডো বাহিনীকে বাগদাদীর অবস্থান সম্পর্কে খোঁজ দেন। ইরাকের রাষ্ট্রীয় টেলিভিশন কিভাবে বাগদাদির অবস্থান লক্ষ্য করে মার্কিন বিশেষ কমাণ্ডো বাহিনীর সদস্যরা অভিযান পরিচালনা করে তা প্রচার করবে বলে জানিয়েছে। পেন্টাগনের এক শীর্ষ কর্মকর্তা জানান, সিরিয়ার ইদলিবে বাগদাদির গোপন অবস্থান লক্ষ্য করে মার্কিন বিশেষ কমাণ্ডো বাহিনীর সদস্যরা ওই অভিযান পরিচালনা করে। একই সঙ্গে ইদলিবে আইএস জঙ্গিরা সম্প্রতি হায়াত তারির আল-শাম বা সাবেক নুসরা ফ্রন্টের সঙ্গে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়েছিল।

হোয়াইট হাউসের ডেপুটি প্রেস সেক্রেটারি হোগান গিডলে সংবাদ মাধ্যমকে জানান, ‘‘মার্কিন সময় রোববার সকাল  নয়টায় বিরাট ঘোষণা করবেন  প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প।’’ কিন্তু এর বেশি আর কিছুই বলতে রাজি হননি গিডলে। কোনও ইঙ্গিতও দেননি। তবে এর আগেই সিরিয়ায় আইএস জঙ্গিদের বিরুদ্ধে বড়সড় অভিযানের ছাড়পত্র দেন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প। তারই ভিত্তিতে আইএস জঙ্গি নেতা আল বাগদাদির বিরুদ্ধে বড়সড় অভিযান চালায় মার্কিন সেনা।

 

সর্বাধিক পঠিত