প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

সারাদিন বিএফডিসিতে ছিলো নবীন-প্রবীণ শিল্পীদের মিলনমেলা (ভিডিও)

টিভিএনএ রিপোর্ট : বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির দ্বি-বার্ষিক নির্বাচনের ভোটগ্রহণ শেষ হয়েছে। সারাদিন ব্যস্ত সময় পার করেছেন নবীন-প্রবীণ শিল্পীরা।ভোট গ্রহণ সকাল ৯টা থেকে শুরু হয়ে শেষ হয় বিকাল ৫টা ২৬ মিনিটে।ভোট দিতে সত্তোরের দশকের শিল্পীরা যেমন এসেছেন তেমনি এই সময়ের শিল্পীদেরও উপস্থিতি ছিল।

সকাল থেকেই চিত্র নায়িকা রোজিনা, অঞ্জনা, আলীরাজ, আফজাল হোসেন, ডিপজল শিল্পীদের সঙ্গে কুশল বিনিময়ে সময় পার করেন। এছাড়া নির্বাচনে সভাপতি পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতাকারী মিশা সওদাগর ও মৌসুমীকে ভোটার কাছে বারবার ছুটতে দেখা গেছে।

এবারের নির্বাচনে কড়া নিরাপত্তা ব্যবস্থা সবার নজর কাড়ে।বিএফডিসির গেটে সকাল থেকেই বিপুল সংখ্যক পুলিশ ও র‌্যাব সদস্যদের উপস্থিতিতে ভরে যায়। চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির মোট ভোটার ৪৪৯ জন। এর মধ্যে ভোট দিয়েছেন ৩৮৬ জন।সিসি ক্যামেরার মাধ্যমে নির্বাচন পর্যবেক্ষণ করা হয়।প্রার্থীরা বাইরে মনিটরে দেখছেন ভোট গণনা।
নির্বাচন কমিশনার ইলিয়াস কাঞ্চন বলেন, ‘ভোটগ্রহণ শেষ হলো।আমরা ভোট গণনা শুরু করেছি।ভোট গণনা শেষ করে আমরা ফলাফল ঘোষণা করবো।’

২০১৯-২১ মেয়াদের শিল্পী সমিতির নির্বাচনে সভাপতি পদে লড়াই করছেন চিত্রনায়িকা মৌসুমী ও খলনায়ক মিশা সওদাগর।সহ-সভাপতির দুটি পদে প্রার্থী হয়েছেন মনোয়ার হোসেন ডিপজল, রুবেল ও নানা শাহ।সাধারণ সম্পাদক পদে জায়েদ খানের প্রতিদ্বন্দ্বী ইলিয়াস কোবরা। সহ-সাধারণ সম্পাদক পদে লড়ছেন আরমান ও সাংকো পাঞ্জা। সাংগঠনিক সম্পাদক পদে অভিনেতা সুব্রতর বিপরীতে কোনো প্রার্থী নেই।

আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক পদে লড়ছেন নূর মোহাম্মদ খালেদ আহমেদ ও চিত্রনায়ক ইমন।দপ্তর ও প্রচার সম্পাদক পদে একাই রয়েছেন জ্যাকি আলমগীর। সংস্কৃতি ও ক্রীড়া সম্পাদক পদে লড়বেন জাকির হোসেন ও ডন।

কোষাধ্যক্ষ পদে অভিনেতা ফরহাদের কোনো প্রতিদ্বন্দ্বী নেই। অর্থাৎ সুব্রত জ্যাকি আলমগীর এবং ফরহাদ বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়েছেন।এবারের নির্বাচনে কার্যকরী পরিষদ সদস্যের ১১টি পদের জন্য প্রার্থী হয়েছেন ১৪ জন। তারা হলেন—অঞ্জনা সুলতানা, রোজিনা, অরুণা বিশ্বাস, আলীরাজ, আফজাল শরীফ, বাপ্পারাজ, রঞ্জিতা, আসিফ ইকবাল, আলেকজান্ডার বো, জেসমিন, জয় চৌধুরী, নাসরিন, মারুফ আকিব ও শামীম খান (চিকন আলী)।

সর্বাধিক পঠিত