প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

দাবি আদায়ের জন্য না খেলা কি সমাধান?

 

আশরাফুল আলম খোকন : আমি একসময় একটি টিভি চ্যানেলে কাজ করতাম। বেতন সুবিধা বৃদ্ধির জন্য সংবাদ বিভাগের কর্মীদের মধ্যে একটা আন্দোলন আন্দোলন ভাব ছিলো ওই সময়। বিপ্লবী-বিদ্রোহী টাইপ একজন সাংবাদিক দাবি করলেন, চলেন আমরা টিভি চ্যানেলের নিউজ বন্ধ করে দেয়, তাহলে বেতন বাড়াতে বাধ্য হবে। তখন সংবাদ বিভাগের প্রধান ছিলেন পিআইবির সাবেক মহাপরিচালক প্রয়াত শাহ আলমগীর ভাই। তিনি আগাগোড়া সাংবাদিকদের দাবি নিয়ে কাজ করা ইউনিয়নের নেতা ছিলেন। নিউজ বন্ধ করে দেয়ার প্রস্তাব শুনে তিনি বললেন, ‘ভালো বেতন তোমাদের অধিকার, আর তথ্য-সংবাদ পাওয়া জনগণের অধিকার। জনগণের অধিকার জিম্মি করে নিজের অধিকার আদায় করা অপরাধ।

এটা অপেশাদার আচরণ। সংবাদ প্রচার ও আন্দোলন পাশাপাশি চলবে।’ দাবি আদায়ের জন্য ক্রিকেট না খেলা কি কোনো সমাধান? মনে করেন, জিদ করে ক্রিকেটাররা খেলা বন্ধ করে দিলো তাদের মতো জিদ করে বিসিবিও কোনো দাবি মানলো না তখন কি হবে? বেচারা জনগণ তখন যদি অভিমান করে আবার ফুটবলমুখী হয়ে যায় তখন তো আম ও ছালা দুটাই যাবে। শুধু ভালো কিংবা দামি খেলোয়াড় হলেই হয় না, দেশপ্রেম থাকাটা জরুরি।নির্বাচিত মন্তব্য :নীলাদ্রি শেখর আমাদের এমন একজন প্রধানমন্ত্রী আছেন যিনি, ক্রিকেট পাগল। কোনো খেলোয়াড় ভালো খেললে তাকে ফোন করে শুভেচ্ছা জানান। সবসময় দলের খোঁজখবর নেন। বড় কোনো সফরের আগে মানসিকভাবে প্রেরণা যোগান, গণভবনে ডাকেন, এক টেবিলে বসে খাওয়া-দাওয়া করেন। পরিবার নিয়ে দেখা করতে গেলেও দরজা খোলা। সেই ক্রিকেট খেলোয়াড়রা সমস্যাটা তো প্রধানমন্ত্রী বরাবরও জানাতে পারতেন। জানাতে পারতেন তাদের ক্যাপ্টেন মাশরাফিকেও। হঠাৎ করে বর্জনের সিদ্ধান্ত ক্রিকেট ভালোবাসা মানুষগুলোর জন্য খুবই দুঃখজনক এবং কখনো কখনো ক্ষোভেরও। ফেসবুক থেকে

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত