প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

সরকার সংকটে পড়েছে মনে করছে বিএনপি

খালিদ আহমেদ : অনেকটা হঠাত্ করে ক্ষমতাসীন দলের প্রভাবশালী নেতাদের বিরুদ্ধে অভিযান, বহিষ্কারের ঘটনা এবং সাম্প্রতিক সময়ে সরকারের বিভিন্ন কর্মকাণ্ড স্বাভাবিক বলে মনে করছেন না বিএনপি নেতারা। তারা মনে করছেন, এর নেপথ্যে টানা তিন দফায় দাপটের সঙ্গে ক্ষমতায় থাকা আওয়ামী লীগ বড়ো ধরনের সংকটের আবর্তে পড়েছে। এনিয়ে নানা আলোচনা ও বিশ্লেষণ চলছে বিএনপিতে। ইত্তেফাক

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ বলেন, প্রশাসনের সহায়তায় ২৯ ডিসেম্বর রাতে ভোট করার মাধ্যমে জনগণের বিরাগভাজন বর্তমান সরকার দেশ পরিচালনায় সর্বক্ষেত্রে ব্যর্থ হচ্ছে। ‘উন্নয়নের গণতন্ত্রের’ নামে লুটপাট-দুর্নীতির চক্রে পড়ে গেছে তারা। আওয়ামী লীগ এবং ছাত্রলীগ, যুবলীগসহ সহযোগী সংগঠনগুলোর কিছু নেতা ‘দানবের মতো চেহারা’ নিয়ে নানা অপরাধে জড়িয়ে পড়েছেন। কোনো ইস্যুকেই সামাল দিতে পারছে না এই সরকার। এনিয়ে মানুষের মাঝে চাপা ক্ষোভ তৈরি করেছে এবং আওয়ামী লীগের পিঠ দেয়ালে ঠেকে যাওয়ার মতো অবস্থায় চলে গেছে। এই পরিস্থিতিতে তারা যা করছে তাতে সংকট কাটবে না। তাসের ঘরের মতো যে কোনো সময় এই সরকার পড়ে যাবে।

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য আমির খসরু মাহমুদ চৌধুরী বলেন, গভীর কোনো সংকটে না পড়লে এই সরকার এ ধরনের অভিযান চালাবে এটা জনগণ বিশ্বাস করে না। কোথাও কোনো সমস্যা হয়েছে। রহস্যজনক কারণে অভিযান চালাতে গিয়ে সংকট আরো বাড়িয়েছে তারা।

স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খান বলেন, আওয়ামী লীগ সমাধানহীন সংকটের মধ্যে নিক্ষিপ্ত হয়েছে। এ থেকে আর বেরুতে পারবে না। অভিযানের নামে দুর্নীতির ছোটোখাটোদের ধরে লাভ নেই। ১০ বছরে ঘরে ঘরে টাকশাল বানিয়েছে। ব্যাংকের বদলে বাড়ির ভোল্টে টাকা রাখছে। শিক্ষাঙ্গনে টর্চার সেলে শিক্ষার্থীদের হত্যা-নির্যাতন করা হচ্ছে। পুরোদেশটাই কারাগার বানিয়ে এখন এ সামান্য অভিযান দিয়ে সংকট কাটবে না। আমার ধারণা তারা এই শুদ্ধি অভিযানের মাধ্যমে ভয়াবহ কোনো সংকট থেকে পরিত্রাণের পথ খুঁজছে।

 

 

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত