প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

১৪ দল মেননের সাথে বসবে, বললেন নাসিম

জাফর আহমেদ : ১৪ দলের শরীক ওয়াকার্স পার্টির সভাপতি রাশেদ খান মেনন ক্ষমতাসীন দল আওয়ামী লীগকে উদ্দেশ্যে করে বদলেছেন একাদশ জাতীয় নির্বাচনে আমি বিজয়ী হয়েছি কিন্তু তার পরেও বলবো দেশের জনগণ ভোট দিতে পারেনি এর বক্তব্যের প্রতিক্রিয়ায় আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলির সদস্য ১৪ দলের মুখপাত্র মোহাম্মদ নাসিম বলছেন, কারো ব্যক্তিগত বক্তব্যে ১৪ দল বিব্রত না। ১৪ দল কোনো ব্যক্তি না একটি প্রতিষ্ঠান।আমরা কয়েকটি সংগঠন মিলে একটি প্রতিষ্ঠান হয়েছি, আমরা জোটবদ্ধভাবে আছি সবসময় থাকবো। তবে রাশেদ খান মেননের সাথে বসে আলোচনা করে জানানো হবে।

মঙ্গলবার ২৩ বঙ্গবন্ধু এভিনিউ আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় রাজনৈতিক কার্যলায়ে কেন্দ্রীয় ১৪ দল আয়োজিত বাংলাদেশ-ভারত ‘ সমঝোতা স্মারক শীর্ষক’ গোলটেবিল বৈঠক এসব কথা বলেন তিনি।

মোহাম্মদ নাসিম বলেন, ১৪ দল কয়েকটি সংগঠন মিলে একটি প্রতিষ্ঠান হয়ে জোটবদ্ধভাবে আছে সবসময় থাকবে।রাশেদ খান মেননের সাথে বসে আলোচনা করে জানানো হবে।ভারত সফর নিয়ে যা বলছে বিএনপির কোনো কথায় সত্যি না।তারা সবসময় মিথ্যা কথা বলে বেড়ায়।

হাসানুল হক ইনু বলেন, বাংলাদেশের সাথে ভারতের যে পানি চুক্তি হয়েছে তা ‘খাবার পানি নিয়ে চুক্তি করা হয়েছে’। ‘সামান্য পরিমাণ খাবার পানি দেয়ার কথা হয়েছে।খাবার পানি দেয়ার কথা হয়েছে মানবিকতা কারণে।

তিনি বলেন, নদী নিয়ে যেসকল সমঝোতা বাকি ছিলো তা সমঝোতা করার চুক্তি হয়েছে। যেসকল অমিমাংসিত বিষয় ছিলো তা মিমাংসা করার জন্য আলোচনা করা হয়েছে। এতে বাংলাদেশ আরো লাভবান হয়েছে। তিস্তা চুক্তির আরো অগ্রগতি হয়েছে। পানি নিয়ে যে চুক্তি হয়েছে তা খাবার পানি নিয়ে চুক্তি করা হয়েছে।সামান্য পরিমাণে খাবার পানি দেয়ার কথা হয়েছে।খাবার পানি দেয়া হবে মানবিকতা কারণে।

বর্তমান সরকারের বিরুদ্ধে যে সব কথা ওঠছে ভারতের কাছে দেশ বিক্রি করেছে,পানি দিয়েছে, গ্যাস দিয়ার চুক্তি হয়েছে এসব নিয়ে আলোচনা হচ্ছে তা মিথ্যা, সম্পূর্ণ দাহা মিথ্যা, অন দেশ থেকে এলজিপি গ্যাস এনে ভারতে দেয়া হবে। এতো বাংলাদেশ ও লাভবান হবে কিন্তু বাংলাদেশের গ্যাস দেয়া হবে না।

হাসানুল হক ইনু বিএনপিকে উল্লেখ করে বলেন,পাকিস্তানের চশমা না পরে বাংলাদেশের চশমা পড়ে দেখলে দেখতে পারবেন বাংলাদেশ বিক্রি হয়নি, গ্যাস বিক্রি হয়নি, দেশের স্বার্থের জন্য চুক্তি করা হয়েছে। বাংলাদেশের স্বার্থ ছাড়া এক বিন্দু দেয়া হয়নি।

রাডার নিয়ে বাংলাদেশে সমুদ্র সীমায় বাংলাদেশে নিরাপত্তা জন্য রাডার স্থাপন করা দরকার এতে ভারত সহযোগিতা করবে। সন্ত্রাসী হামলা যাতে না করতে পারে এজন্য রাডার স্থাপন করা দরকার। ভারতের সাথে যত চুক্তি করা হয়েছে তা সমান সমান লাভ হয়েছে।দুইএকটা বিষয়ে আমরা বেশি লাভ পাচ্ছি।

গোলটেবিল বৈঠক আরোও উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য কনেল ফারুক খান, সাবেক ত্রাণ ও দুর্যোগমন্ত্রী তোফাজ্জল হোসেন মায়া,সাবেক খাদ্যমন্ত্রী অ্যাডভোকেট কামরুল ইসলাম, উপদপ্তর সম্পাদক ব্যারিষ্টার বিপ্লব বড়ুয়া, আওয়ামী লীগের নির্বাচন সমন্বয় কারী ড.মাহাবুব হাসান চৌধুরী, সাবেক তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু, সাম্যবাদী দলের সাধারণ সম্পাদক দিলিপ বড়ুয়া, ওয়ার্কাস পার্টির সাধারণ সম্পাদক ফজলে হোসেন বাদশা, নজিবুল বশর মাইজভান্ডরী প্রমুখ।

সর্বাধিক পঠিত