প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

১৫ বছরের অপেক্ষার পর ১৪ ঘণ্টায় বড় ভাইয়ের বিসর্জন পূর্ণ করলেন নাদিফ

স্পোর্টস ডেস্ক : গতকাল দিনেও জানতে অনেক বছর ধরে অপেক্ষার প্রহরণ শেষ হচ্ছে। যখন জানলেন তখন হয়তো নিজের কানকেই বিশ্বাস করতে পারছিলেন না তিনি। কি করে করবেন ১৫ বছর ধরে যে এই জায়গায় আসার জন্য নিজেকে তৈরি করছেন। শুধু তাই নয় নিজেকে সুযোগ পেতে বড় ভাইয়ের সপ্নকেও যে কোরবান দিতে হয়েছে। বলছি ভারতের স্পিনার শাহনাজ নাদিমের কথা। যার দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে আজ সাদা পোষাকে অভিষেক হয়েছে।

১৫ বছর পর প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে খেলার পর ভারতের জাতীয় দলে ডাক পেয়েছেন স্পিনার শাহবাজ নাদিম। তার উঠে আসার পেছনের গল্পও বেশ চমকপ্রদ। বাবা ধ্যানবাদের পুলিশ কর্মকর্তা। দুই সন্তানকে তিনি বলেছিলেন, তোমাদের মধ্যে যেকোনো একজন ক্রিকেট খেলতে পারবে। যে খেলায় ভবিষ্যৎ নেই তার পিছু ছুটে ছেলেদের ‘নিশ্চিত জীবন’ ঝুঁকির মধ্যে পড়ুক, তা চাননি তিনি। বিহার থেকে ক্রিকেটার হিসেবে কত দূর যাওয়া যায় তা নিয়েও সন্দেহে ছিলেন শাহবাজের বাবা। আর তাই শাহবাজের বড় ভাই আসাদ ইকবাল (বিহার অনূর্ধ্ব-১৫ দলের অধিনায়ক) ক্রিকেট ছেড়ে দেন ছোট ভাইয়ের জন্য। তার ছোট ভাই শাহবাজ তখন ১৪ বছর বয়সেই খেলছিলেন অনূর্ধ্ব-১৯ দলে।

সেই আসাদ ইকবাল এখন ইঞ্জিনিয়ারিংয়ের সঙ্গে এমবিএ-ও শেষ করে দিল্লিতে প্রতিষ্ঠিত। ছোট ভাই জাতীয় দলে ডাক পাওয়ায় তার সবচেয়ে বেশি খুশি হওয়ার কথা। শেষ পর্যন্ত বিসর্জনের ফল যে মিলেছে!

উল্লেখ্য, ২০০৪ সালে ঝাড়খণ্ডের হয়ে নাদিমের প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে অভিষেক। ঘরোয়া ক্রিকেট ও ভারত ‘এ’ দলের সেরা পারফরমারদের একজন তিনি। ১১০ প্রথম শ্রেণির ম্যাচে নিয়েছেন ৪২৪ উইকেট। ইনিংসে পাঁচ উইকেট ১৯ বার, ম্যাচে ১০ উইকেট পাঁচবার। ব্যাট হাতে আছে একটি সেঞ্চুরিও।

২০১৫ ও ২০১৭ সালে তিনি রঞ্জি ট্রফির দুই মৌসুমে ১০৭ উইকেট নিয়ে জাতীয় দলের দরজায় কড়া নাড়তে শুরু করেন। ২০১৫-১৬ মৌসুমে নেন ৫১ উইকেট, ২০১৬-১৭ মৌসুমে ছাড়িয়ে যান সেই সংখ্যা, নেন ৫৬ উইকেট। রঞ্জির পরপর দুই মৌসুমে পঞ্চাশ উইকেট নেয়া মাত্র দ্বিতীয় বোলার তিনি।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত