প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

জনগণের ঐক্যের বিরুদ্ধে গিয়ে কেউ টিকতে পারেনি, বললেন ড. কামাল

শিমুল মাহমুদ : শুক্রবার দুপুরে জাতীয় প্রেসক্লাবে এক আলোচনা সভায় তিনি এ কথা বলেন।ড. কামাল হোসেন বলেন, স্বৈরশাসকদের মূল চেষ্টা থাকে সাম্প্রদায়িকতা ও সংকীর্ণ দলীয় মানসিকতার মাধ্যমে বিভেদ সৃষ্টি করা।তারা জনগণকে বিভক্ত করে ক্ষমতায় থাকতে চায়।জনগণের হাতে ক্ষমতা দিতে চায় না।অতীতেও এ ধরনের শাসকরা এসব করে ক্ষমতায় থাকতে চেষ্টা করে ব্যর্থ হয়েছে। সাময়িকভাবে ক্ষমতায় থাকলেও জনগণের ঐক্যের কারণে তাদের বিদায় নিতে হয়েছে।

গণফোরামের এ সভাপতি আরো বলেন, জনগণের ঐক্যের কোনও বিকল্প নেই।ঐক্যের ডাক জেলা, গ্রাম, পাড়া-মহল্লায় নিতে যেতে হবে।ক্ষমতার মালিক হিসেবে জনগণ যেন নিজের ভূমিকা রাখতে পারে।সেজন্য ঐক্যকে সুসংহত করতে হবে।সেজন্যই আমাদের এই ঐক্যের ডাক।

জেএসডি সভাপতি আ স ম আবদুর রব বলেন, অঘোষিতভাবে দেশে এখন কোনও সংবিধান নেই। ক্ষমতাসীনরা যেমন ইচ্ছে সেভাবে দেশ পরিচালনা করছে। স্বৈরশাসকদের দেশ পরিচালনায় কিছু নিয়ম থাকে, কিন্তু এখন দেশে এক ব্যক্তির শাসন চলছে।

ক্ষমতাসীন সরকার দেশের স্বার্থে নয়, অন্যদের স্বার্থে দেশ শাসন করছে বলে অভিযোগ করেন গণফোরামের সাধারণ সম্পাদক রেজা কিবরিয়া। তিনি বলেন, এরা শুধু ব্যাংক, শেয়ারবাজার লুট করেনি, মানুষের ভোটাধিকারও হরণ করেছে। নির্বাচন কেন্দ্রিক সংকট সমাধানে জাতীয় ঐক্যের প্রয়োজন ও প্রাসঙ্গিকতা’ শীর্ষক এ সভার আয়োজন করে মুক্তিজোট।

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত