প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

আবারও বাংলাদেশকে নিয়ে বিতর্কিত বিজ্ঞাপন তৈরি করলো স্টার স্পোর্টস

রাকিব উদ্দীন : ভারতের মাটিতে আগামী নভেম্বরে তিন ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজ খেলবে বাংলাদেশ দল। চিরপ্রতিদ্বন্দ্বীর সাথে ম্যাচ নিয়ে উত্তেজনা বিরাজ করা স্বাভাবিক। তবে প্রতিবারের মতো এবারও বাংলাদেশকে নিয়ে বিজ্ঞাপনের মাধ্যমে কটাক্ষ করেছে ভারত। ক্রিকটাইম

আগামী ৩ নভেম্বর থেকে শুরু হবে বাংলাদেশ ভারত টি টোয়েন্টি সিরিজ। সিরিজের ১ম টি টোয়েন্টি অনুষ্ঠিত হবে দিল্লীর অরুন জেটলি স্টেডিয়ামে।

ভারতীয় ক্রিকেট বিষয়ক চ্যানেল স্টার স্পোর্টস কর্তৃক পরিচালিত বিজ্ঞাপনটিতে অভিনয় করেন ভারতের তারকা ক্রিকেটার বিরেন্দর শেবাগ। তবে সেই বিজ্ঞাপনটিকে ঘিরেই উঠেছে আলোচনা,সমালোচনার ঝড় নেটিজেনদের মাঝে।

স্টার স্পোর্টসের বিজ্ঞাপনটিতে বাংলাদেশকে দেখানো হয় একটি বল হিসেবে ও ভারতকে ব্যাট। সেখানে নিছক মজার খেলায় কোহলিকে উড়িয়ে দিতে পারায় বাংলাদেশ সমর্থককে খুব খুশি দেখানো হয়। তা দেখে শেবাগ বলেন, ‘এই মজার খেলায় ভারতকে হারিয়ে বাংলাদেশ যদি এত উড়তে পারে তাহলে এরা ভারতকে প্রথমবারের মতো টি টোয়েন্টিতে হারাতে পারলে কি করে বসবে?’

এই বিজ্ঞাপন নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে মিশ্র প্রতিক্রিয়া দেখা গিয়েছে। বাংলাদেশি ভক্তদের মতে এই ধরনের বিজ্ঞাপন খুবই নি¤œ মানের ও এতে প্রতিপক্ষকে নিচু করা হয়েছে। ভারতীয় ভক্তরা অধিকাংশই এই বিজ্ঞাপনকে সাধুবাদ জানালেও কারো কারো দাবি এইরকম বিষয় নিয়ে বিজ্ঞাপন না বানানোর যা প্রতিপক্ষকে হেয় করে।

স্টার স্পোর্টস এর আগেও শুধু বাংলাদেশ নয় প্রায় অনেক প্রতিপক্ষকে হেয় করেই বিজ্ঞাপন প্রচার করেছে সিরিজের আগে। আসন্ন সিরিজ নিয়ে শেবাগ জানান ‘বাংলাদেশ একটি ভালো দল, ভারত ও বাংলাদেশের মাঝে যে লড়াই রয়েছে তা ২০০৭ বিশ্বকাপ ও ২০১৫ সালে বাংলাদেশের ঘরের মাটিতে সিরিজের পর আরো বৃদ্ধি পেয়েছে। তবে এটা সত্য তারা আমাদের টি-টোয়েন্টিতে এখন পর্যন্ত কখনো হারাতে পারেনি। মাঠের বাইরে এই ধরনের হাসি ঠাট্টা ( বিজ্ঞাপনকে ইঙ্গিত করে) চলতেই থাকে। আমরা সকলেই জানি বাংলাদেশি ভক্তরা বিশাল ক্রিকেট ভক্ত ও তারা ক্রিকেটকে সিরিয়াসলি নিয়ে থাকে। আপনারা তা লক্ষ্য করতে পারবেন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে দুই পক্ষের নানান ধরনের ট্রলের মাধ্যমে গত কয়েক বছরে। আমি আসন্ন সিরিজকে নিয়ে খুব আগ্রহী।’

উল্লেখ্য এর আগে বাংলাদেশ একাধিক বার কাছাকাছি আসলেও ভারতকে টি টোয়েন্টিতে হারাতে পারেনি।

সর্বাধিক পঠিত