প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

১০৯ কুর্দি বিদ্রোহীকে হত্যার দাবি তুরস্কের, ইউরোপে ৩৬ লাখ শরণার্থী পাঠানোর হুমকি দিলেন এরদোগান

আসিফুজ্জামান পৃথিল : তুরস্ক জানিয়েছে বিমান হামলার পর উত্তর সিরিয়ার কুর্দি নিয়ন্ত্রিত এলাকায় স্থল অভিযান শুরু করেছে তাদের সেনাবাহিনী। তুর্কি সেনাবাহিনী এই অভিযানের নাম দিয়েছে অপারেশন পিস স্প্রিং। দেশটির প্রেসিডেন্ট রিসেপ তায়েপ এরদোগান এই মৃতের সংখ্যার দাবি করেছেন। আনাদলু, সিএনএন, বিবিসি

ক্ষমতাসীন একে পার্টিল প্রাদেশিক প্রধানদের সঙ্গে বৈঠকে এরদোগান বলেছেন, উত্তর সিরিয়াকে এই অভিযান দ্বারা ‘সন্ত্রাসীমুক্ত’ করার পর সব সিরিয়ান নিজ বাড়িতে ফিরে যেতে পারবেন। তিনি বলেছেন, ‘আমরা চাইনা অপারেশন পিস স্প্রিং দ্বারা কেউ ক্ষতিগ্রস্থ হোক। বিশেষত বেসামরিক কেউ।’ তুরস্ক ১০৯জনকে হত্যার কথা বললেও বিদেশী গণমাদ্যমগুলো বলছে মৃতর সংখ্যা আসলে ৮ জন। আর সিরিয়ান ডেমোক্রেটিক ফোর্স- এসডিএফ বলছে এর মধ্যে ৫ জনই বেসামরিক ব্যক্তি। এক টুইট বার্তায় তারা বলেছে, ‘৩ যোদ্ধা আর ৫৪ বেসামরিক ব্যক্তি শহীদ হয়েছেন। অজ¯্র বেস্মরিক ব্যক্তি কড় পরিসরে করা তুর্কি শেলিং-এ আহত হয়েছেন।’

এদিকে এরদোগান ইউরোপীয় দেশগুলোকে হুমকি দিয়ে বলেছেন তারা যদি এই অভিযানের সমালোচনা করেন, তবে তিনি ইউরোপকে ৩৬ লাখ শরণার্থী দিয়ে ভাসিয়ে দেবেন। তিনি স্পষ্ট করে জানিয়ে দিয়েছেন এই আগ্রাহী অভিযান বিষয়ে কোনো ধরণের সমালোচনাই সহ্য করবেন না। এদিকে শুরু থেকেই তুরস্ক বলে আসবে এই অভিযানের উদ্দেশ্য উত্তর সিরিয়ায় একটি সেফ জোন তৈরী করা। যে সেফ জোনে তুরস্কে অবস্থান করা সিরিয়ান শরণার্থীদের রাখা হবে।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ