প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

আজ থেকে ২২ দিন ইলিশ ধরা বন্ধ

ডেস্ক রিপোর্ট : ইলিশ প্রজননের সময় আহরণ বন্ধ রেখে ইলিশের উৎপাদন বৃদ্ধি করতে সরকারের এই পদক্ষেপ। এতে বৃদ্ধি পাবে ইলিশের উৎপাদন। বিগত বছরগুলোতে এ থেকে বেশ ভালো ফল পাওয়া গেছে।  দেশের অভ্যন্তরীন সকল নদ-নদী ও বঙ্গোপসাগরে গত রাত ১২টা থেকে নিষিদ্ধ করা হয়েছে ইলিশ সংগ্রহ। নিষেধাজ্ঞা বলবৎ থাকবে আগামী ৩০ অক্টোবর পর্যন্ত। এই ২২ দিন জেলেদের যাতে কষ্ট না হয়, সেজন্য এবারও তাদের জন্যে চাউল বরাদ্দ দেয়া হবে।

এদিকে প্রচুর ইলিশ ধরা পড়লেও শেষদিনে ব্যবসায়ীদের কারসাজিতে দাম বেড়ে গেছে ইলিশের। শেষ চালানে ট্রলারগুলোতে প্রচুর ইলিশ আসলেও ব্যবসায়ীদের কারসাজিতে দাম বেশ চড়া। সরেজমিনে গিয়ে দেখা গেছে এখানকার পাইকারী বাজার থেকে ৬শ থেকে ৯শ’ গ্রাম পর্যন্ত ওজনের ইলিশ সংগ্রহ করে মজুদ করা হচ্ছে। শত শত মণ ইলিশ সংগ্রহের পর দিন-রাত সমান তালে কেসিংয়ের পর তা গাড়ি ভর্তি করা হচ্ছে।

নিষেধাজ্ঞা সম্পর্কে পুলিশের বরিশালের রেঞ্জ ডিআইজি মোঃ শফিকুল ইসলাম জানান, মা ইলিশ রক্ষায় ২২ দিনব্যাপী সাঁড়াশি অভিযান পরিচালনার জন্য সকল প্রস্তুতি সম্পন্ন করা হয়েছে। জেলা ও উপজেলা মৎস্য দফতর, নৌ-বাহিনী, কোস্টগার্ড, নৌ-পুলিশ, থানা পুলিশ, এপিবিএনসহ অসংখ্য টিম সার্বক্ষণিক নজরদারী করবে। কোথাও কেউ আইন ভঙ্গ করলেই সঙ্গে সঙ্গে তাকে আইনের আওতায় এনে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। এই অভিযান রাতেও পরিচালনা করা হবে। অবৈধ পথে ইলিশ পাচার রোধে নৌ পুলিশের টহল জোরদার থাকবে।’

সরকারের আদেশ অমান্য করে ইলিশ মাছ আহরণ ও বিক্রি করলে এক বছর থেকে সর্বোচ্চ দুই বছরের সশ্রম কারাদন্ড বা পাঁচ হাজার টাকা পর্যন্ত জরিমানা বা উভয় দন্ডের বিধান রয়েছে।

মন্ত্রণালয়ের মৎস্য-২ অধিশাখার ইলিশ ধরা বন্ধের ঘোষণা আসার পর থেকেই ব্যাপক তৎপরতা শুরু করেছে জেলা মৎস্য দপ্তর। জনসচেতনতা তৈরি করতে ইতোমধ্যে লিফলেট বিতরণ, পোস্টারিং, মাইকিংসহ নানাভাবে প্রচারণা চালানো হচ্ছে।

বিভাগীয় মৎস্য অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক মো.আজিজুর রহমান জানান, বরিশাল বিভাগে ২ লাখ ২৭ হাজার ৯৪৩ জন জেলে চাল বরাদ্দের সুবিধা পাবেন। আগামী ২০ অক্টোবরের মধ্যে জেলেদের মধ্যে চাল বিতরনের তাগিদ দেয়া হয়েছে।

এদিকে নিষেধাজ্ঞার পূর্বের দিন দক্ষিণাঞ্চলের পাইকারী মোকাম ও ছোট-বড় হাটবাজার ইলিশ মাছের দখলে ছিল। নিষেধাজ্ঞা শুরুর শেষ ক’দিন সকাল থেকে গভীর রাত পর্যন্ত ক্রেতা-বিক্রেতায় মুখরিত ছিল ইলিশ মোকামগুলো। মঙ্গলবার বরিশাল নগরীর পোর্ট রোড ইলিশ মোকাম ঘুরে দেখা গেছে, যেমন প্রচুর ইলিশ, তেমন অসংখ্য ক্রেতার সমাগম। সরকারি বন্ধ থাকায় এখানকার বৃহৎ পাইকারি পোর্ট রোডের ইলিশ মোকামে ক্রেতাদের ভীড় সামাল দিতে হিমশিম খেতে হয়েছে সকলকে। নগর সংলগ্ন এলাকাসমূহ ও পার্শ্ববর্তী উপজেলাগুলো থেকেও ইলিশ কিনতে মোকামে ভীড় করেছেন ক্রেতারা।

টিই/এসবি

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত