প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

সুস্থ থাকার জন্য যতো কম পেঁয়াজ খাওয়া যায় ততোই ভালো, বললেন পুষ্টিবিদ তাসনিম আশিক

হ্যাপি আক্তার : আলোচনায় এখন পেঁয়াজ! পেঁয়াজ ছাড়াও রান্না সম্ভব। এতে খাবারের স্বাদ বা পুষ্টিগুণে কী প্রভাব না। এমটিই জানিয়েন, নর্দান ইন্টারন্যাশনাল মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের পুষ্টিবিদ তাসনিম আশিক। ইনডিপেনডেন্ট টেলিভিশন

তিনি বলেন, রান্নায় পেঁয়াজের ব্যবহার অত্যাবশ্যকীয় নয়, বরং কম পেঁয়াজ ব্যবহারে রান্নাই অধিক স্বাস্থ্যকর। পেঁয়াজ ছাড়া রান্না করা যে কোনো ধরনের খাবার খেলে স্বাস্থ্যঝুঁকি নেই। পেঁয়াজ ছাড়া বা একেবারেই কম পেঁয়াজ ব্যবহার করে রান্নার পক্ষেই মত দিলেন এই পুষ্টিবিদ।

তিনি আরো বলেন, পেঁয়াজ ছাড়াও রান্না খেলে বরং স্বাস্থ্যের জন্য ভালো। কারণ, পেঁয়াজ ব্যবহার করা রান্নায় সাধারণত বেশি তেল দেয়া হয়।
পুষ্টিবিদ তাসনিম আশিক বলেন, এক সপ্তাহ বা এক মাস যদি পেঁয়াজ ছাড়া রান্না করা তরকারি খাওয়া হলেও এতে কোনো সমস্যা হবে না এবং কোনো পুষ্টির অভাব হবে না। তাই পেঁয়াজ নিয়ে বেশি ভাবার কিছু নেই।

পেঁয়াজ ছাড়া রান্না করা রেসিপি স্বাস্থ্যের জন্য উপকারিতা নিয়ে সামিয়া তাসনিম বলেন, সুস্থ থাকার জন্য যতো কম পেঁয়াজ খাওয়া যায়, ততোই ভালো। পেঁয়াজ ছাড়াও অনেক রেসিপি করা যায়। আর এক মাস বা তার অধিক সময় ধরেও পেঁয়াজ ছাড়া রান্না খেলে স্বাস্থ্যের কোনো ক্ষতি হয় না এবং পুষ্টিরও অভাব হবে না।

তিনি আরো বলেন, স্বাস্থ্য সচেতন ব্যক্তিদের জানা দরকার, পেঁয়াজের অভাবে পুষ্টির ঘাটতি হয় না। সাধারণত রান্নাকে আরও স্বাদু করে তোলার জন্যই মূলত পেঁয়াজ ব্যবহার করা হয়। কিন্তু পেঁয়াজ ছাড়াও অনেক সুস্বাদু রেসিপি করা যায়। যাতে স্বাস্থ্যঝুঁকি কম। সম্পাদনা : রাশিদ

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ