প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

পি চিদাম্বরমের সঙ্গে তিহার জেলে দেখা করলেন মনমোহন ও সোনিয়া

রাশিদ রিয়াজ : গত সপ্তাহে কংগ্রেস নেতা গুলাম নবী আজাদ এবং আহমেদ প্যাটেল ভারতের প্রাক্তন অর্থমন্ত্রী পি চিদাম্বরমের সঙ্গে তিহার জেলে গিয়ে দেখা করেছিলেন। আইএনএক্স মিডিয়া দুর্নীতি তদন্তের মামলায় ৫ সেপ্টেম্বর থেকে দিল্লির তিহার জেলে থাকা প্রাক্তন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী পি চিদাম্বরমের সঙ্গে দেখা করতে সেখানে গেলেন প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ও সোনিয়া গান্ধি। ২০০৭ সালে কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী থাকাকালীন পি চিদাম্বরমের বিরুদ্ধে আইএনএক্স মিডিয়া সংস্থায় বিদেশি তহবিলের এক বিশাল আদান-প্রদানের সুবিধা করে দেওয়ার অভিযোগ আনা হয়। অভিযোগ তাঁর ছেলে কার্তি চিদাম্বরমের অনুরোধেই ওই কাজ করেন তিনি। পরিবর্তে আইএনএক্স মিডিয়া সংস্থার কাছ থেকে বিশাল অঙ্কের ঘুষ পান কার্তি চিদাম্বরম।

শীনা বোরা হত্যার মামলায় বর্তমানে জেলবন্দি আইএনএক্স মিডিয়া সংস্থার সহ-প্রতিষ্ঠাতা পিটার এবং ইন্দ্রাণী মুখোপাধ্যায় প্রথম পি চিদাম্বরমের নাম উল্লেখ করেন।

গত সোমবার জেলে বসেই নিজের ৭৪ তম জন্মদিন পালন করেন পি চিদাম্বরম। তিনি “সুস্থ আছেন”, জানায় সংবাদসংস্থা পিটিআই । প্রাক্তন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী অর্থনীতি সহ বিভিন্ন বিষয়ে কেন্দ্রীয় সরকারকে লক্ষ্য করে তিহার জেলে বসেই সোশ্যাল সাইট মারফৎ নিয়মিত আক্রমণ শানাচ্ছেন। জেল থেকে নিজের টুইটারের টাইমলাইনও সক্রিয় রেখেছেন প্রবীণ ওই কংগ্রেস নেতা।

তিনি যেকোনও সময় বেপাত্তা হয়ে যেতে পারেন, তদন্ত সংস্থা সিবিআইয়ের এই আশঙ্কাকে রীতিমতো কটাক্ষ করেছেন পি চিদাম্বরম। নিজের অফিসিয়াল অ্যাকাউন্টে পোস্ট করা একটি টুইটে ওই কংগ্রেস নেতা বলেন যে তিনি এটা ভেবে “রোমাঞ্চিত” যে কিছু লোক বিশ্বাস করে যে তাঁর”সোনার ডানা গজাতে পারে এবং উড়ে যেতে” পারেন তিনি।

“আমি এটা জানতে পেরে সত্যিই রোমাঞ্চিত যে কিছু লোক মনে করে যে আমার সোনার ডানা গজাবে এবং আমি সেই ডানা দিয়েই চাঁদে উড়ে যাব। আশা করি আমার নিরাপদে অবতরণ হবে”, চিদাম্বরমের হয়ে এই পোস্ট করে তাঁর পরিবার ।

গত বৃহস্পতিবার পি চিদাম্বরম দিল্লি আদালতে অভিযোগ করেন, তিহার জেলে তাঁর জন্য কোনও চেয়ার বা বালিশ বরাদ্দ নেই। প্রাক্তন অর্থমন্ত্রীর আইনজীবী জানান, এর ফলে তাঁর “পিঠে ব্যথা” বেড়ে গিয়েছে। পি চিদাম্বরম বলেন, “ঘরের বাইরে কয়েকটি চেয়ার ছিল, সারাদিন আমি সেখানে বসে থাকতাম, সেটাও সরিয়ে নেওয়া হয়েছে। কারণ, আমি সেটা ব্যবহার করতাম, এখন সেটা সরিয়ে দেওয়া হয়েছে, ওয়ার্ডেনেও কোনও চেয়ার নেই”। তাঁর স্বাস্থ্য পরীক্ষার দাবিও জানান পি চিদাম্বরমের আইনজীবী।

কিন্তু আদালত তাঁর এই অভিযোগ খারিজ করে দেয়, কেননা তার আগেই সরকারের তরফ থেকে পি চিদাম্বরমের অভিযোগকে তুচ্ছ ব্য়াপার বলা হয়। এরপরেই ৩ অক্টোবর পর্যন্ত আদালত তাঁর বিচারবিভাগীয় হেফাজতের মেয়াদ বাড়িয়ে দেয় আদালত।

 

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ