প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

মানসিক ভারসাম্যতা হারিয়ে ফেলছে মিন্নি, ঢাকায় আসছেন চিকিৎসা নিতে

খালিদ আহমেদ : গতকাল শনিবার এ তথ্য জানিয়েছেন আয়শা সিদ্দিকা মিন্নির বাবা মোজাম্মেল হোসেন কিশোর। বিকেল ৪টায় বরগুনা লঞ্চঘাট থেকে এমভি শাহরুখ লঞ্চে করে ঢাকার উদ্দেশ্যে রওনা দেন তারা। এসময় তাদের সঙ্গে ছিলেন নানা জাকির সিকদার ও একজন আত্মীয়।

মিন্নির বাবা মোজাম্মেল হোসেন কিশোর বলেন, জামিনে কারামুক্ত হওয়ার পর থেকেই আমার মেয়ে মিন্নি শারীরিক ও মানসিকভাবে অসুস্থ। কারো সঙ্গে কথা বলে না। ঠিকমতো খাওয়া-দাওয়া করে না। দিনকে দিন মিন্নি মানসিক ভারসাম্যতা হারিয়ে ফেলছে। আমরা মিন্নির আইনজীবীর সঙ্গে কথা বলে মিন্নিকে নিয়ে ঢাকা যাচ্ছি উন্নত চিকিৎসার জন্য। সেই সাথে আমাদের পরবর্তি আইনী লড়াইয়ের জন্য আইনজীবীদের সাথেও পরামর্শ করে আসবো।

১৬ জুলাই সকাল পৌনে ১০টার দিকে মিন্নিকে তার বাবার বাড়ি বরগুনা পৌর শহরের নয়াকাটা-মাইঠা এলাকা থেকে পুলিশ লাইনে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য নিয়ে যাওয়া হয়। এরপর দীর্ঘ জিজ্ঞাসাবাদ শেষে একই দিন রাত ৯টায় তাকে গ্রেপ্তার দেখানো হয়।

১ সেপ্টেম্বর রিফাত শরীফ হত্যা মামলায় রিফাতের স্ত্রী আয়শা সিদ্দিকা মিন্নিসহ ২৪ জনের বিরুদ্ধে বরগুনার সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে অভিযোগপত্র (চার্জশিট) দেয় পুলিশ। একই সঙ্গে রিফাত হত্যা মামলার ১ নম্বর আসামি নয়ন বন্ড বন্দুকযুদ্ধে নিহত হওয়ায় তাকে মামলা থেকে অব্যাহতি দেয়া হয়। এখন পর্যন্ত ১৫ জনকে গ্রেপ্তার করতে সক্ষম হয়েছে পুলিশ। গ্রেপ্তারকৃতদের মধ্যে ছয় কিশোর অপরাধী শিশু-কিশোর সংশোধনাগারে রয়েছে। এছাড়া আয়শা সিদ্দিকা মিন্নিসহ জামিনে রয়েছেন দুজন।
২৬ জুন সকাল সোয়া ১০টার দিকে বরগুনা সরকারি কলেজের সামনে সন্ত্রাসীরা প্রকাশ্যে রামদা দিয়ে কুপিয়ে গুরুতর আহত করে রিফাত শরীফকে। তার স্ত্রী আয়েশা সিদ্দিকা মিন্নি হামলাকারীদের সঙ্গে লড়াই করেও তাদের দমাতে পারেননি। গুরুতর আহত রিফাতকে ওইদিন বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হলে বিকেলে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান। সম্পাদনা : আবদুল অদুদ

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ