প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

অবশেষে আফগানিস্তানকে হারাতে পারলো বাংলাদেশ

আক্তারুজ্জামান : ফাইনাল ম্যাচের রিহার্সেল করতে এর চেয়ে ভালো সুযোগ বোধহয় আর হয় না। যাদের বিরুদ্ধে শিরোপা নিষ্পত্তির খেলা হবে তাদেরকে পরখ করে নেয়ার এটাই উত্তম পথ। ত্রিদেশীয় সিরিজে গ্রুপপর্বের শেষ ম্যাচে আফগানিস্তানের বিরুদ্ধে লড়ছে বাংলাদেশ। চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে আগে ব্যাটিং করে ১৩৮ রান তোলে সফরকারী আফগানিস্তান। জবাবে সাকিব আল হাসানের দুর্দান্ত ব্যাটিংয়ে ভর করে ৬ বল বাকি থাকতে ৪ উইকেটে জয় নিশ্চিত করে বাংলাদেশ।

এর মধ্যে দিয়ে টানা চার হারের পর জয়ের দেখা পেলো সাকিব আল হাসানরা। সাকিব ৪৫ বলে ৭০ রানের ইনিংস খেলে অপরাজিত থাকেন। এর আগে দুজন ওপেনার লিটন (৪) ও শান্ত (৫) দলের জন্য কিছু না করেই ফিরে যান। পরে বিপদে পড়া দলের ভার কাঁধে তুলে নেন সাকিব। আর তাকে সঙ্গ দেন মুশফিক। কিন্তু ২৫ বলে ২৬ রান করে মুশফিক ফেরার পর মাহমুদউল্লাহ, সাব্বির ও আফিফ দ্রুত ফিরলে হঠাৎ ছন্দপতন হয় টাইগারদের। কিন্তু মোসাদ্দেককে নিয়ে লক্ষ্য পার করে দল জিতিয়ে মাঠ ছাড়েন সাকিব। ১২ বলে ১৯ রানের দর্শণীয় ইনিংস খেলেন মোসাদ্দেক।

শনিবার টস হেরে ব্যাটিংয়ে নেমে ঝড় তোলার ইঙ্গিত দিলেও সেটা বিপজ্জনক হয়নি। দুই আফগান ওপেনার হজরতুল্লাহ ও রহমানুল্লাহ তোলেন ৭৫ রান। এই জুটি ভাঙতে যখন কপালে ভাঁজ পড়ছিলো তখন সাকিব বল তুলে দেন আফিফের হাতে। ব্যাস, কোনো রান না দিয়েই তুলে নেন দুটি উইকেট। সাজঘরে ফেরান ৪৭ রানে ক্রিজে থাকা হযরতুল্লাহকে। পরের বলে বিনা রানেই ফেরেন আসগর। রহমানুল্লাহ ২৯, নজিবুল্লাহ ১৪ ও শফিকউল্লাহ ২৩ রান করেন।

এরপর আর রানের গতি বাড়াতে পারেনি সফরকারীরা। ৯ ওভারে ৭৫ রান তোলা আফগানিস্তান পরের ১১ ওভারে তুলতে পেরেছে মাত্র ৬৩ রান। হারাতে হয়েছে ৭টি উইকেট। আফিফ ৩ ওভার বল করে ৯ রানে শিকার করেন দুটি উইকেট। এছাড়াও সাকিব, মুস্তাফিজ, সাইফউদ্দীন ও শফিউল ইসলাম একটি করে উইকেট নেন।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ