প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

নারায়ণগঞ্জে ট্রিপল হত্যার ঘাতক আব্বাস আদালতে দায় স্বীকার

মনজুর এ অনিক: নারায়ণগঞ্জে শ্যালিকা ও দুই শিশু মেয়েকে নৃশংসভাবে হত্যার ঘাতক দুলা ভাই আব্বাস মিয়া আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দী প্রদান করেছে। শুক্রবার বিকালে নারায়ণগঞ্জ সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মিল্টন হোসেন আদালতে ওই হত্যাকান্ডের দায় স্বীকার করে ১৬৪ ধারায় জবানবন্দী রেকর্ড করা হয়। এর আগের বৃহস্পতিবার রাতে ওই হত্যাকান্ডের ঘটনায় নিহত গৃহবধূ নাসরিন বেগমের স্বামী সুমন মিয়া বাদী হয়ে সিদ্ধিরগঞ্জ থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেন।

এদিকে ময়না তদন্ত শেষে শুক্রবার দুপর ৩টার দিকে হাসপাতাল থেকে নিহতের লাশ পরিবারের সদস্যদের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। এবং বিকালেই নাসিক ৬নং ওয়ার্ড বার্মাষ্ট্যান্ড মন্ডলপাড়া কবরস্থানে তাদের দাফন করা হয়। এসময় কবরস্থান এলাকায় শোকের ছাড়া মেনে আসে। ঘাতক আব্বাস পটুয়াখালী জেলার পইক্কা গ্রামের আকুল কালামের ছেলে। সে সিদ্ধিরগঞ্জ বাতেনপাড়া এলাকায় ভাড়া থাকতো। পেশায় সে বাবুর্চী।

এদিকে মামলায় বাদী সুমন উল্লেখ করেন, তার স্ত্রীর বড় বোন ইয়াসমিনের সাথে স্বামী আব্বাসের দীর্ঘদিন ধরে পারিবারিক কলহ চলছিল। ১৭ সেপ্টেম্বর রাতে আব্বাস ও তার স্ত্রী ইয়াসমিনের ঝগড়া হয়ে। পরে শ্যালক হাসান বড় বোনের স্বামী আব্বাসকে মারধর করে। পরদিন সকালে হাসান বড় বোন ইয়াসমিন ও মেয়ে সুমাইয়া ছোট বোন নাসরিনের বাসায় আসে। ১৯ সেপ্টেম্বর সকাল পৌনে ১০টায় সুমন কর্মস্থল থেকে বাসায় এসে স্ত্রী ও সন্তানদের গলাকাটা রক্তাক্ত লাশ এবং তার স্ত্রীর বড় বোনের প্রতিবন্ধী মেয়ে সুমাইয়াকে রক্তাক্ত আহত অবস্থায় দেখতে পায়। খবর পেয়ে শ্যালক হাসান ও স্ত্রীর বড় বোন বাসায় আসে এবং হাসান সুমাইয়াকে ঢাকা মেডিকেলে নিয়ে যায়।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা সিদ্ধিরগঞ্জ থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মোঃ আজিজুল হক জানান, তিন হত্যা মামলার একমাত্র আসামী আব্বাস উদ্দিনকে জিজ্ঞাবাদের জন্য ১০ দিনের রিমান্ড চেয়ে আপদালতে পাঠায় হয়। সেখানে আদালতে দেওয়া স্বীকারোক্তিতে আব্বাস ক্ষোভের পূঞ্জীভ‚ত থেকেই হত্যাকান্ডের ঘটনাটি ঘটিয়েছে জানান। ধারালো ছোড়া নিয়ে ফ্ল্যাটে যায়। প্রথমে সুমনের স্ত্রী নাজমিন (২৮) ও তার দুই কন্যা নুসরাত (৬) ও সায়মার (২) গলা কেটে হত্যা করে। এসময় চিৎকার চেচামেচি করলে তার নিজের মেয়ে প্রতিবন্ধি সুমাইয়াকেও (১৫) ছোড়া দিয়ে আঘাত করে গুরুতর জখম করে। নারায়ণগঞ্জ কোর্ট পুলিশের এসআই মোঃ কামাল হোসেন জানান, ট্রিপল হত্যা মামলার আসামী আব্বাস দায় স্বীকার করে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তি মূলক জবানবন্দি দিয়েছেন। পরে তাকে জেল হাজতে প্রেরন করার নির্দেশ দেন আদালত।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ