প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

শুভেচ্ছা হিসাবে গেছে প্রধানমন্ত্রী ও কৃষি মন্ত্রীর দপ্তরে অসময়ের মিষ্টি আম গৌরমতি

মাজহারুল ইসলাম : বর্তমানে আমাদের দেশে রয়েছে আড়াই শতাধিক জাতের আম। এরমধ্যে সাম্প্রতিক উদ্ভাবিত গৌরমতি জাতের আম জানান দিয়েছে তার নিজস্ব অবস্থান। অন্যসব জাতের আম যখন শেষ, তখনই শুরু হয় এর মৌসুম। মিষ্টতার মাত্রা ২৭ টিএসএস নিয়ে সবচেয়ে মিষ্টি আমের বৈশিষ্ট্য বহন করছে এই গৌরমতি। বাসস

২০১২ সালে উদ্ভাবনের পরের বছরে নাটোরের বাগাতিপাড়া উপজেলার জামনগরের ৮টি চারা দিয়ে গৌরমতির জাতের আমের চাষ শুরু করেন গোলাম মওলা। ব্যাপক চাহিদা ও মুনাফার কারণে তিনি এর পরিধি বাড়াতে থাকেন। বর্তমানে ২৪ বিঘা জমিতে ২০০০ গৌরমতির জাতের আমগাছের মধ্যে এ মৌসুমে ১০০টিতে আম ধরেছে। স্থানীয় বাজার ছাড়াও গৌরমতির জাতের এই আম বর্তমানে রাজধানীসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে পাওয়া যাচ্ছে । শুভেচ্ছা হিসেবে গৌরমতির জাতের আমের গেছে প্রধানমন্ত্রী ও কৃষি মন্ত্রীর দপ্তরে। অসময়ের এই আমের বিপণনের জন্যে কোথাও যেতে হয় না। ক্রেতারা বাগানে এসেই এই আম কিনে নিয়ে যান।

কীটনাশকমুক্ত এবং সম্পূর্র্র্ণ অর্গানিক রাখতে ব্যাগিং ও নেট দিয়ে আমের গাছগুলোকে ঘিরেও রেখেছেন। ফল উৎপাদকদের জন্যে এটি একটি দৃষ্টান্ত বলে কৃষিবিদরা মনে করেন। গৌরমতির চারা উৎপাদন করে তা ২ থেকে ৩শ টাকা দরে বিক্রি করা যাচ্ছে। নাটোরের কলেজ শিক্ষক ও সফল ফল চাষী গোলাম মওলা জানান, বাণিজ্যিকভাবে চারা উৎপাদন করে গৌরমতির জাতের আমের বিস্তারে রয়েছে ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা।

 

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ