প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

এনআরসির ফলে আসল ভোটাররা বাদ পড়ে গেছে: অমিত শাহের সঙ্গে বৈঠকে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়

রাশিদ রিয়াজ : ভারতের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ও বিজেপি সভাপতি অমিত শাহের সঙ্গে বৈঠকে আসামের নাগরিকদের তালিকা বা এনআরসি নিয়ে আলোচনা করেছেন পশ্চিমবাংলার মুখ্যমন্ত্রী বন্দ্যোপাধ্যায়। “অনেক আসল ভোটার বাদ পড়েছে”, বলেন তিনি। আসামের নাগরিকত্ব নিবন্ধন থেকে ১৯ লাখ মানুষের নাম বাদ দেওয়া হয়েছে বলে উল্লেখ করে তিনি  বলেন যে বাংলায় নাগরিকপঞ্জিকরণের কোনও দরকার নেই। আসামে  নাগরিকদের তালিকা বাস্তবায়ন হওয়ার পর দেখা যায় ওই তালিকা থেকে প্রায় ১৯ লাখ  লোকের নাম বাদ পড়েছে, যা নিয়ে ব্যাপক সমালোচনাও হয় দেশ জুড়ে। সংবাদসংস্থা এএনআই মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে উদ্ধৃত করে জানিয়েছে, “আমি তাঁকে (অমিত শাহ) একটি চিঠি দিয়েছি, যেখানে তাঁকে আমি বলেছি যে এনআরসি থেকে বাদ পড়া ১৯ লাখ লোকের মধ্যে অনেকেই হিন্দিভাষী, বাংলাভাষী এবং স্থানীয় অসমিয়া রয়েছেন। অনেক প্রকৃত ভোটারকে বাদ দেওয়া হয়েছে তালিকা থেকে। এদিকে নজর দেওয়া উচিত বলে অনুরোধ করে আমি একটি অফিসিয়াল চিঠি জমা দিয়েছি”।

বুধবারই কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ সারাদেশে জাতীয় নাগরিকপঞ্জি চালু করা এবং অবৈধ অভিবাসীদের বিরুদ্ধে কড়া ব্যবস্থা নেওয়ার বিষয়ে কেন্দ্রীয় সরকারের পরিকল্পনার কথা বলে ফের হুঁশিয়ারি দেন।

তিনি একথাও দাবি করেন যে, জনগণ ইতিমধ্যেই ২০১৯ সালের লোকসভা নির্বাচনের তাঁদের পক্ষে রায় প্রদানের মাধ্যমে দেশব্যাপী এনআরসি বাস্তবায়নের পক্ষে অনুমোদন দিয়েছে। যেহেতু তিনি প্রতিটি প্রাক-নির্বাচনী সমাবেশে এনআরসি চালুর বিষয়ে সওয়াল করে বক্তব্য রেখেছিলেন, সেই পরিপ্রেক্ষিতেই এই দাবি করেন তিনি।

বৃহস্পতিবার নয়া দিল্লিতে অমিত শাহের সঙ্গে বৈঠকের পর সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন যে, “তিনি (অমিত শাহ) পশ্চিমবঙ্গে এনআরসি চালু সম্পর্কে কিছু বলেননি। তবে আমি ইতিমধ্যে আমার অবস্থান পরিষ্কার করে দিয়ে বলেছি পশ্চিমবঙ্গে এনআরসি চালুর দরকার নেই”।

এর আগে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় নয়া দিল্লিতে গিয়ে বুধবার সাক্ষাৎ করেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সঙ্গে। এই সাক্ষাৎ প্রসঙ্গে বাংলার প্রধান প্রশাসক জানান, রাজ্যের নাম পরিবর্তন নিয়ে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সঙ্গে আলোচনা করেছেন তিনি, এবং ইতিবাচক উত্তরও পেয়েছেন। বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের মুখ্যমন্ত্রী বলেন, “প্রধানমন্ত্রী জানিয়েছেন, এই বিষয়টি নিয়ে কিছু করবেন তিনি”। প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠক করতে মঙ্গলবার নয়াদিল্লি পৌঁছান মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়, লোকসভা নির্বাচনের পর, প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে এটি তাঁর প্রথম বৈঠক হল। মুখ্যমন্ত্রী জানান, দুর্গাপুজোর পর, রাজ্যে এসে একটি বৈঠক করার জন্যও প্রধানমন্ত্রীকে আমন্ত্রণ জানিয়েছেন তিনি। মুখ্যমন্ত্রী বলেন, “বাংলার অর্থনৈতিক উন্নতি নিয়ে আমরা কথা বলেছি।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ