প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

প্রধানমন্ত্রীর দুর্নীতি প্রতিরোধের উদ্যোগকে একটা আন্দোলন হিসেবে নিতে হবে, বললেন ড. গোলাম রহমান

আমিরুল ইসলাম : গণমাধ্যম গবেষক ও যোগাযোগ বিশেষজ্ঞ অধ্যাপক ড. মো. গোলাম রহমান বলেছেন, প্রশাসনের সহায়তা ও রাজনৈতিক পৃষ্ঠপোষকতায় দুর্নীতি হয়ে থাকে। দুর্নীতিরোধ করার জন্য উভয় ক্ষেত্রেই নিয়ন্ত্রণ আনতে হবে। দুর্নীতি প্রতিরোধ করার জন্য অনেক বড় ধরনের উদ্যোগ নেয়া দরকার। প্রধানমন্ত্রী ছাত্রলীগের শীর্ষ নেতাদের বিরুদ্ধে যে পদক্ষেপ নিয়েছেন, এটা থেকে বোঝা যায় তিনি দুর্নীতির বিরুদ্ধে বড় ধরনের পদক্ষেপ নিতে যাচ্ছেন। কেন্দ্রীয় পর্যায়ে শীর্ষ নেতাদের তিনি অব্যাহতি দিলেন, কিন্তু তৃণমূল পর্যায়ে এখন রাজনৈতিক দলগুলো দুর্নীতির সঙ্গে সম্পৃক্ত হয়ে গেছেন। তৃণমূল পর্যন্ত দুর্নীতি প্রতিরোধ করাটাই এখন প্রধানমন্ত্রীর জন্য বড় চ্যালেঞ্জ।

তিনি বলেন, সমাজের প্রতিটি স্তরেই দুর্নীতি বেড়ে গেছে। ক্ষমতাসীন রাজনৈতিক দলের নেতাকর্মীদের যদি দুর্নীতি থেকে বিরত করা না যায় তাহলে শুধু প্রশাসনের উপর ভিত্তি করে দুর্নীতিরোধ করা যাবে না। প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা থেকে বোঝা যায় প্রতিটা স্তরেই দুর্নীতির বিরুদ্ধে আন্দোলন চলবে। প্রধানমন্ত্রীর উদ্যোগ বাস্তবায়ন করতে তৃণমূল পর্যন্ত আওয়ামী লীগ, যুবলীগ ও ছাত্রলীগের নেতাকর্মীদের মনমানসিকতা বদল করতে হবে। আখের গোছানোর রাজনীতির চিন্তা পরিত্যাগ করতে হবে। তাহলেই প্রধানমন্ত্রীর উদ্যোগ বাস্তবায়ন হবে। চ্যালেঞ্জটা বহুমুখী, কারণ শুধু দলীয় রাজনীতিবিদরা নয় এর সঙ্গে আমলারাও জড়িত রয়েছে। জাতীয় ও আন্তর্জাতিক দুর্নীতির ইনডেক্সে বাংলাদেশের অবস্থান অনেক উপরে। বিশেষ করে বিচার ব্যবস্থা, পুলিশ, ভূমি মন্ত্রণালয়সহ সরকারি-বেসরকারি প্রায় প্রতিটি অফিসেই ব্যাপক দুর্নীতি রয়েছে। এ আন্দোলন পরিচালনা করা খুব সহজ কাজ নয়। কারণ এ আন্দোলনে তিনি সবার সহযোগিতা পাবেন না। এ আন্দোলনের জন্য প্রকৃত আওয়ামী লীগ কর্মীদের অনেক বেশি ত্যাগ স্বীকার করতে হবে। সম্পাদনা : মাহবুব

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ