প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

জাপাকে আসন ছেড়ে দেয়ায় গণতন্ত্র প্রহসনে পরিণত হয়েছে, বললেন ডা: এম এ সামাদ

রফিক আহমেদ : দেশে এখন গণতন্ত্রের আর কিছু অবশিষ্ট নেই নির্বাচন কমিশন, গণতন্ত্র প্রহসনে পরিণত হয়েছে। দেশে এখন মূলত এক ব্যক্তির শাসন চলছে। এটাকে আমরা গণতন্ত্রের লেবাসে ফ্যাসিবাদী শাসন বলতে পারি। মঙ্গলবার এক সাক্ষাৎকারে বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি (মার্কসবাদী’র) সাধারণ সম্পাদক ও গণতান্ত্রিক বাম ঐক্য’র সমন্বয়ক ডা: এম এ সামাদ এ মন্তব্য করেন।

ডা: এম এ সামাদ বলেন সামরিক শাসককে মোকাবেলা করা যায়। কিন্তু গণতন্ত্রের লেবাসে কোন একক ব্যক্তির ফ্যাসিবাদী শাসন মোকাবেলা করা কঠিন কাজ। রংপুরের সংসদীয় আসনের উপ নির্বাচনে আওয়ামী লীগ তাদের প্রার্থী প্রত্যাহার করে জাপাকে আসনটি ছেড়ে দিয়েছে এটা অনৈতিক। বিগত ৩০ ডিসেম্বরের ভোট ডাকাতি করতে সরকারকে সহযোগিতা করায় এটা জাপাকে পুরস্কার দেয়া হলো।

তিনি বলেন, বিগত নির্বাচনেও আমরা দেখেছি কাকে কোন আসন দেওয়া হবে এটা গণভবনে বসেই নির্ধারিত হয়েছিল! রংপুরের উপ নির্বাচনেও সেই একই জায়গা থেকেই নির্ধারিত হয়েছে এই আসনের ভাগ্য। জাতির জন্য এটা খুবই লজ্জাজনক যে নির্বাচনের পুর্বেই প্রকাশ্যে আসন ভাগাভাগি হচ্ছে। নির্ধারিত করে দেওয়া হচ্ছে কে কোন আসনের এমপি হবে। জনগণের ইচ্ছা অনিচ্ছার তোয়াক্কা করা হচ্ছে না। জনগণ তাদের পছন্দের প্রার্থীকে নির্বাচিত করতে পারছেন না।

তিনি আরও বলেন, দেশ আজ দুর্নীতির স্বর্গরাজ্য পরিণত হয়েছে। প্রকাশ্যেই লুটপাট চলছে! কারণ জনগণের কাছে কোন জবাবদিহিতা নেই, এমপি হতে জনগণের ভোটের প্রয়োজন হয় না। রাজনীতি এখন আর রাজনীতিবিদদের হাতে নেই চলে গেছে মাফিয়াদের হাতে। কে কোন আসনে এমপি হবেন এটা যেহেতু এক জায়গা থেকেই নির্ধারিত হয়। রংপুরের উপনির্বাচনের বেলায়ও তাই হয়েছে, দেশবাসী অবাক হয়নি তবে লজ্জিত হয়েছে। তিনি জনগণের ভোটের অধিকার প্রতিষ্ঠার লড়াইয়ে রাজপথে আসার জন্য সকলের প্রতি আহবান জানান।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ