প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

জিএস রাব্বানীর অপসারণ চেয়ে চিঠি দিচ্ছেন ভিপি নুর

ডেস্ক রিপোর্ট : ডাকসুর জিএস গোলাম রাব্বানীর অপসারণ চেয়ে চিঠি দিচ্ছেন ডাকসুর ভিপি নুরুল হক নুর। অনৈতিক কর্মকান্ড নিয়ে বিব্রত হওয়ার কথা জানিয়ে ডাকসুর এজিএস সাদ্দাম বলছেন, তারাও বিষয়টি ডাকসু সভাপতি ও উপাচার্যকে অবহিত করেছেন। তার দাবি, ডাকসুর অন্যতম স্বাতন্ত্র্য হচ্ছে অনৈতিকার বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ানো।ডিবিসি

ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক থেকে বাদ পড়ার পর গোলাম রাব্বানীর ডাকসুর জিএস পদে থাকা নিয়ে চলছে নতুন বিতর্ক। পদে থাকা নিয়ে প্রথমেই প্রশ্ন তোলেন ডাকসুতে তার সহকর্মী ভিপি নুরুল হক নুর। অপসারণ চেয়ে চিঠিও দিতে যাচ্ছেন তিনি।

ডাকসুর ভিপি বলেন, ‘আমি প্রত্যেক সিনেট সদস্যের উদ্দেশ্যে চিঠি ইস্যু করছি। যেহেতু ডাকসুর দুই সদস্য সিনেটে রয়েছেন। তাই সিনেটকে বিষয়টা জানানো উচিত। ডাকসুর সভাপতি যেহেতু উপাচার্য সেখানে জিএস এর বিরুদ্ধে নৈতিক স্খলনের অভিযোগ উঠেছে, তাই ডাকসুর সভাপতির কাছে চিঠি লিখছি।’

একই ছাত্র সংগঠন থেকে এজিএস নির্বাচিত হয়েছেন সাদ্দাম হোসাইন। এ বিষয়ে তার অবস্থান জানতে চাইলে তিনি জানান, ‘আমরা যেহেতু ডাকসুর কাছে প্রত্যাশা করি তারা নৈতিকভাবে দৃঢ় থাকবে, অন্যায়-অবিচার এবং দুর্নীতির বিরুদ্ধে কথা বলবে। সেক্ষেত্রে এটিও একটি বিবেচ্য বিষয়।’

ডাকসুর এজিএস আরও জানান, ‘বর্তমানে গঠনতন্ত্র পর্যালচনা করা হচ্ছে উপাচার্যকে জানানো হয়েছে এখন কি করা উচিত। অথবা অতীতে ডাকসুর কোনো সদস্যের ক্ষেত্রে এমন ঘটনা ঘটেছে কি না বা ঘটে থাকলে তখন কি ব্যবস্থা নেয়া হয়েছিল।’

এ বিষয়ে ডাকসুর সাংস্কৃতিক সম্পাদক আসিফ তালুকদার বলেন, ‘ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের চাওয়াই আমাদের চাওয়া। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা যদি আনুষ্ঠানিকভাবে চায় যে তারা জিএসকে চাচ্ছেনা, তাহলে আমাদের সাংগঠনিক যে পদ্ধতি আছে সে অনুযায়ী ব্যবস্থা নেয়া হবে।’

সাধারণ শিক্ষার্থী বা অন্য সংগঠনগুলোর সবাই রাব্বানীর জিএস পদে থাকার বিপক্ষে। তবে, উপাচার্য ও ডাকসুর সভাপতি বলছেন গঠনতন্ত্রের বাইরে যাওয়ার সুযোগ নেই।

ঢাকা বিশ্বাবিদ্যালয়ের উপাচার্য ড. মোহাম্মদ আখতারুজ্জামান বলেন, ‘ডাকসুর জন্য সুনির্দিষ্ট গঠনতন্ত্র আছে। গঠনতন্ত্রে বিভিন্ন ধারা, উপধারা বা অনুচ্ছেদ আছে কিভাবে ডাকসু পরিচালিত হবে। সুতরাং গঠনন্ত্র যেভাবে চায় সেভাবেই হবে।’

তবে, নৈতিকস্খলণের কারণে অপসারণ বা বাদ দেয়ার বিষয়ে পরিষ্কার কিছু বলা নেই ডাকসুর গঠনতন্ত্রে।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ