প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

বৃষ্টি নামাতে ব্যাঙের বিয়ে , আবার বৃষ্টি থামাতে ব্যাঙের বিবাহ বিচ্ছেদ

মুসবা তিন্নি : বৃষ্টির দেবতাকে সন্তুষ্ট করতে ভারতের মধ্যপ্রদেশে ব্যাঙের বিয়ে দেয়ার রীতি চালু আছে। প্রচলিত ধারণা, এর ফলে নাকি দেবতা সন্তুষ্ট হয়ে বৃষ্টি ঝরাবেন। কিন্তু এবার সেখানেই দেখা গেল উলটাপুরাণ। সম্প্রতি অতিবৃষ্টির ফলে বিপর্যস্ত ওই রাজ্য। এবার তাই অতিবৃষ্টি রুখতে সেখানে দুটি ব্যাঙের মধ্যে বিবাহ বিচ্ছেদ করানো হল। আশা, এতে যদি দেবতা খুশি হয়ে বৃষ্টি বন্ধ করেন! অর্থসূচক

গত জুলাই মাসেই ওই ব্যাঙদুটির বিয়ে দেয়া হয় এই প্রত্যাশায় যে এর ফলে দেবরাজ ইন্দ্র এবং বৃষ্টির দেবতা সন্তুষ্ট হবেন এবং শুকনো জমিতে অনেক বৃষ্টি ঝরাবেন। কিন্তু এতো হিতে বিপরীত। গত দুমাসে মধ্যপ্রদেশের ভোপালে এতো বৃষ্টি হয়েছে যে সেখানকার মানুষদের নাজেহাল অবস্থা। এই সময় মাথায় আসে এই আজব ভাবনা। লাগাতার হওয়া বৃষ্টি কমাতে সেখানকার স্থানীয় বাসিন্দারা ঠিক করেন যে এবার ব্যাঙেদের বিবাহ বিচ্ছেদ ঘটাতে হবে, তাতে যদি কমে বৃষ্টি। আর সেই মতোই দুটি ব্যাঙের প্রতীকী বিচ্ছেদও ঘটিয়েছেন তারা।

সেখানকার ইন্দ্রপুরী এলাকার ওম শিব সেবা শক্তি মন্ডলের সদস্যরা এক সন্ধ্যায় ব্যাঙেদের ওই বিবাহ বিচ্ছেদ সম্পন্ন করলেন রীতিমতো আচার অনুষ্ঠান করে। ‘রাজ্যে বৃষ্টিপাত আনতে আমরা দুটি কাদামাটি দিয়ে তৈরি ব্যাঙেদের মধ্যে বিয়ে দিয়েছিলাম। তবে এখন যেভাবে সমানে বৃষ্টিপাত হয়েই চলেছে তাতে সমস্যায় পড়েছেন মানুষ, তাই এবার বৃষ্টি বন্ধের জন্য আমরা ওই ব্যাঙদুটিকে আলাদা করেছি’ বলেন ওই মণ্ডলের এক সদস্য সুরেশ আগরওয়াল। সেখানকার একটি শিবের মন্দিরে একটি যথাযথ ‘বিচ্ছেদ অনুষ্ঠান’ আয়োজন করা হয়েছিল এবং দুটি মাটির ব্যাঙকে মন্ত্র জপের মাধ্যমে জল ভরা একটি পাত্রে ছেড়ে দেয়া হয়। সম্পাদনা : রাশিদ

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ