প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

সচেতন মুসলমানের মৃত্যুচিন্তা

আমিন মুনশি : আপনি হঠাৎ করে মারা গেলেন। কিন্তু ফেসবুকে রয়ে গেলো আপনার অসংখ্য ছবি। কিংবা বন্ধু-বান্ধব, আত্মীয়কে কোনো গান বা মুভি সাজেস্ট করেছিলেন; যা স্পষ্টত হারাম। সেসব হারামের দিকে আহ্বানের জন্য এবং হারাম কাজের জন্য আপনার মৃত্যুর পরও আমলনামায় গুনাহ যোগ হতে থাকবে। যতোজন আপনার সাজেস্ট করা বা শেয়ার করা মুভি দেখবে, গান শোনবে আপনার আমলনামায় মৃত্যুর পরেও এই গুনাহসমূহ যোগ হতে থাকবে। যাকে বলে গুনাহে জারিয়া!

মৃত্যুর পরপরই আপনার-আমার ফেসবুক, হোয়াটসআপ, ইন্সটাগ্রাম ইত্যাদি নানাপ্রকার সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ধুম করে গায়েব হয়ে যাবে না। আমাদের আইডিতে গায়রে মাহরাম কত নারী-পুরুষ ছবিগুলোতে চোখ বুলিয়ে যাবে! আর আমলনামায়ও তখন গুনাহ যোগ হতে থাকবে! হাদিস শরিফে আছে, ‘যে ব্যক্তি হেদায়েতের দিকে আহ্বান করবে, তার আহ্বানে যারা হেদায়েতের অনুসরণ করবে, সে ব্যক্তি অনুসরণকারীদের সমান প্রতিদান পাবে এবং তা তাদের প্রতিদানে সামান্যও হ্রাস ঘটাবে না। অনুরূপ যে ব্যক্তি কোনো গোমরাহীর দিকে আহ্বান করবে, তার আহ্বানে যারা গোমরাহীর অনুসরণ করবে, সে ব্যক্তিরও অনুসরণকারীদের সমান পাপ হবে এবং তা তাদের পাপের মাঝে সামান্যও হ্রাস ঘটাবে না।’ (সহিহ মুসলিম : ২৬৭৪)

তবে দয়ালু আল্লাহ পাক ঘোষণা করেছেন, ‘বলে দিন, হে আমার বান্দাগণ! যারা নিজেদের উপর সীমালংঘন করেছে, আল্লাহর রহমত থেকে নিরাশ হয়ো না। নিশ্চয়ই আল্লাহ সকল পাপ ক্ষমা করেন। তিনি তো অতি ক্ষমাশীল বড় মেহেরবান।’ (সূরা যুমার : ৫৩) রাসূল সা. বলেন, যে বান্দা গোনাহ থেকে ইসতিগফার করতে থাকে সে গোনাহের উপর জমে আছে বলে গণ্য হবে না। (আবু দাউদ : ১৫১৪)

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ