প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

আমিরাত থেকে বিশাল বিনিয়োগ আসছে বাংলাদেশে

খালিদ আহমেদ : বাংলাদেশে এক হাজার কোটি টাকা বিনিয়োগ করবে সংযুক্ত আরব আমিরাতের (ইউএই) বেশ কয়েকটি ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠান। । আজ রোববার কনরাড দুবাই হোটেলে শুরু হতে যাওয়া বাংলাদেশ ইকোনোমিক ফোরামের আগে এ তথ্য জানায় এর আয়োজকরা। এরাবিয়ান বিজনেস ডট কম

ফোরামে ৩০০ জনের বেশি সরকারি কর্মকর্তা, ব্যবসায়ী নেতা, বিনিয়োগকারী ও উদ্যোক্তা অংশগ্রহণ করবেন। এক দিনের এই সম্মেলনের লক্ষ্য হলো, বাংলাদেশ ও ইউএই-এর বাণিজ্য ও বিনিয়োগ প্রবাহকে শক্তিশালী করা। ইউএই-এর অর্থনীতিতে প্রধান বিনিয়োগকারীরা হলেন বাংলাদেশি। দেশটিতে ৫০ হাজারের বেশি ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের মালিক বাংলাদেশি প্রবাসীরা। তারা বেশ সফলতার সঙ্গেই এসব ব্যবসা প্রতিষ্ঠান পরিচালনা করছেন। এগুলোতে এক লাখ ৫০ হাজারের বেশি মানুষ কাজ করে থাকেন।

বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বেসরকারি শিল্প ও বিনিয়োগ উপদেষ্টা সালমান এফ রহমান বাংলাদেশ ইকোনোমিক ফোরামের দ্বিতীয় অধিবেশনে মূল বক্তব্য উপস্থাপন করবেন। তিনি একটি ২০ সদস্যের সরকারি প্রতিনিধি দলের নেতৃত্ব দেবেন। এ বিষয়ে এরাবিয়ান বিজনেসকে দেয়া এক সাক্ষাতকারে সালমান এফ রহমান বলেন, ‘বাংলাদেশে ১০০ ইকোনোমিক জোন এবং ২৮টি হাইটেক পার্ক তৈরি করা হচ্ছে যেখানে কম শ্রম খরচে এবং খুব কম অর্থ ব্যয় করে শিল্প স্থাপনা গড়া সম্ভব। আরব আমিরাত এবং মধ্যপ্রাচ্যের বিনিয়োগকারী ভাইদের এখনই এই সুযোগ গ্রহণ করা উচিত।’

তিনি আরও বলেন, ‘গত বছর বাংলাদেশে সরাসরি বিদেশি বিনিয়োগের পরিমাণ ৬৯ শতাংশ বেড়ে ৩৬১ বিলিয়ন হয়। বাংলাদেশ আরও সরাসরি বিদেশি বিনিয়োগ গ্রহণ করতে প্রস্তুত। আমরা চীন, জাপান ও যুক্তরাষ্ট্র থেকে সবচেয়ে বেশি বিনিয়োগ পেয়েছি।’

এর আগে এ বছরের ১৮ ফেব্রুয়ারি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আরব আমিরাত সফরের সময় দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক শক্তিশালীকরণের অংশ হিসেবে দুই দেশের মধ্যে বিনিয়োগ, ব্যবসা-বাণিজ্য এবং বিদ্যুৎ খাতে চারটি সমঝোতা স্মারক সাক্ষরিত হয়েছে।

প্যান এশিয়া মিডিয়ার মতে, ২০১৮ সালে বাংলাদেশের অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি ছিল ৭.৯ শতাংশ। এই প্রবৃদ্ধির পরিমাণ আরও বাড়ানোর সব ধরনের পদক্ষেপ নেয়া হচ্ছে। আগামী কয়েক বছরে বাংলাদেশের অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি আট শতাংশ হবে বলে আশা করা হচ্ছে।
কেএ/এসবি

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ