প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

প্রস্তুতি ম্যাচে জিম্বাবুয়েকে ১৪৩ রানের লক্ষ্য দিলো বিসিবি একাদশ

শিউলী আক্তার : ত্রিদেশীয় সিরিজে মূল ম্যাচে মাঠে নামবে আগামী শুক্রবার। তার আগে জিম্বাবুয়ের সঙ্গে প্রস্তুতি ম্যাচ খেলছে বিসিবি একাদশ। এই ম্যাচে মূল স্কোয়াডের ক্রিকেটাররাও অংশ নিচ্ছেন। কিন্তু ব্যাটিং প্রস্তুতিটা সুবিধাজনক হয়নি বিসিবি একাদশের। ৭ উইকেট হারিয়ে মাত্র ১৪৩ রানের টার্গেট দিয়েছে মুশফিক-সাব্বিররা।

ফতুল্লায় খান সাহেব ওসমান আলি স্টেডিয়ামে টস জিতে প্রথমে ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নেন স্বাগতিক দলের অধিনায়ক সাইফ হাসান। নাইম শেখকে সঙ্গে নিয়ে ইনিংসের গোড়াপত্তন করতে নেমে দলকে ভালো শুরুও এনে দেন সাইফ। যদিও ক্রিজে বেশিক্ষণ থিতু হতে পারেননি, আউট হন সমান ১ চার ও ছক্কায় ২১ রান করে।

তার বিদায়ে দলীয় ২৬ রানে প্রথম উইকেট হারায় স্বাগতিকরা। নতুন ব্যাটসম্যান হিসেবে ক্রিজে আসেন সাব্বির রহমান। এরপর জ্বলে ওঠেন নাইম। আক্রমণাত্বক ব্যাটিংয়ে তুলতে থাকেন দ্রুত রান। ইনিংসের ষষ্ঠ ওভারে চারবার সীমানা ছাড়া করেন বল। ঐ ওভার থেকে ১৬ রান আদায়ের পরের ওভারেই বিদায়ঘন্টা বাজে তার। আউটের আগে ৫ চারের সাহায্যে ১৪ বল থেকে করেন ২৩ রান।

দুই ওপেনারের বিদায়ের পর সাব্বিরের সাথে স্বাগতিকদের হাল ধরেন মুশফিকুর রহিম। তৃতীয় উইকেট জুটিতে দু’জনের ব্যাটে বড় সংগ্রহের স্বপ্ন দেখে স্বাগতিকরা। যদিও ৫৩ রানে যোগ করেই বিচ্ছিন্ন হয় এ উইকেট জুটি। ব্যক্তিগত ৩০ রানে উইলিয়ামসের বলে সাব্বির স্টাম্পড হলে ভাঙ্গে এ জুটি। সাব্বিরের বিদায়ের পর এক বলের বেশি ক্রিজে থাকতে পারেননি মুশফিক।

২৬ বলে ২৬ রান করে উইলিয়ামসের হাতে ফিরতি ক্যাচ দিয়ে সাজঘরে ফিরেন তিনি। তার বিদায়ে দলীয় ১০৭ রানে চতুর্থ উইকেট হারায় স্বাগতিকরা। এরপর ক্রিজে যোগ দেন আফিফ হোসেন ও ইয়াসির আলি। তবে ব্যাট হাতে দলের প্রয়োজনে এগিয়ে আসতে পারেননি কেউই। আফিফ ৮ বলে ১০ ও ইয়াসির ১০ বলে ৬ রান করে ফিরেন সাজঘরে।

এর ফলে ১৯তম ওভারে দলীয় ১২৫ রানে ৬ উইকেট হারায় স্বাগতিকরা। শেষদিকে মোহাম্মদ সাইফউদ্দিনের ৭ বলে ৭ ও আরিফুল হকের ৪ বলের ৯ রানের কল্যাণে ৭ উইকেটে ১৪২ রানের পুঁজি পায় বিসিবি একাদশ।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত