প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

কূল নাই কিনার নেই লক্ষ্মীপুরের দালালবাজারের খোয়া সাগর দীঘির, ঠাসা পর্যটকে

শেখ নাঈমা জাবীন : ল²ীপুরের দালালবাজারের খোয়া সাগর দীঘি। প্রাকৃতিক সৌন্দর্য উপভোগ করতে প্রতিদিনই সেখানে ঘুরতে আসেন হাজারো ভ্রমন পিপাসু মানুষ। জেলা প্রশাসক বলছেন, সরকারি উদ্যোগে চলছে দীঘির সৌন্দর্য বর্ধনের কাজ। এরই মধ্যে প্রায় ৮০ শতাংশ কাজ শেষ হয়েছে। তার আশা, ভবিষ্যতে এই দীঘি পর্যটনশিল্প বিকাশে ভূমিকা রাখবে। একাত্তর টিভি,

প্রায় ২৫ একর এলাকা জুড়ে ল²ীপুর সদরের এই খোয়া সাগর দীঘি। বিশাল এই দীঘির এক প্রান্তে দাঁড়িয়ে অন্য প্রান্ত চোখে পড়ে না। চারপাশে ঘন গাছের সারির মাঝে দীঘির স্বচ্ছ জল। তাইতো এখানে প্রতিদিন ঘুরতে আসেন হাজারো মানুষ।

সন্ধ্যায় দীঘির পূর্ব-পশ্চিমপাড় সৌর বিদ্যুতের আলোয় আলোকিত হয়ে ওঠে। পর্যটকরা বলেছেন, দীঘির এই সৌন্দর্য মনে প্রশান্তি এনে দেয়। সরকারি উদ্যোগে পর্যটকদের জন্য সুযোগ সুবিধা বাড়ানোর কথা বলেন তারা। খোয়া সাগরকে পর্যটন কেন্দ্র হিসেবে ঘোষণার দাবি জানিয়েছেন স্থানীয়রা।

ল²ীপুরের জেলা প্রশাসক অঞ্জন চন্দ্র পাল জানান, এরই মধ্যে দীঘির সৌন্দর্য বাড়াতে পর্যটন মন্ত্রনালয়ে চিঠি দেয়া হয়েছে। গত অর্থবছরে বেসামরিক বিমান ও পর্যটন মন্ত্রণালয় থেকে পাওয়া বরাদ্দ থেকে চলছে এর উন্নয়ন কাজ।

তিনি বলেন, আমরা পর্যটকদের আকর্ষনের জন্য দীঘির সৌন্দর্য বর্ধনের কাজ শুরু করেছি। আশা করি কাজ শেষ হলে ল²ীপুরের সাধারণ মানুষ তা উপভোগ করবে এবং পর্যটন শিল্প বিকাশে খোয়া সাগর দীঘি একটি অনন্য ভূমিকা পালন করবে।

১৭৫৫ সালে জমিদার ব্রজভল্লব রায় খনন করেন দীঘিটি। এরই মধ্যে খোয়া সাগর দীঘি প্রতœতত্ত¡ বিভাগের গেজেটভূক্ত হয়েছে। সম্পাদনা : কায়কোবাদ মিলন, খালিদ আহমেদ

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ