প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

ভারত ১৯ লাখ মানুষকে বাংলাদেশে পুশইন করার পাঁয়তারা করছে, বললেন ডা. এম এ সামাদ

রফিক আহমেদ : বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি (মার্কসবাদী’র) সাধারণ সম্পাদক ও গণতান্ত্রিক বাম ঐক্যর সমন্বয়ক ডা. এম এ সামাদ বলেছেন, ভারত সরকার নাগরিকপঞ্জি থেকে বাদপড়া ১৯ লাখ বাংলাভাষাভাষী মানুষকে বাংলাদেশে পুশইন করার পাঁয়তারা করছে। আসামের রাজনীতিতে বিজেপি কংগ্রেসসহ সকলেই ‘বাঙালী খেদাও’ নামে প্রতিক্রিয়াশীল আন্দোলন করছে। যা আমাদের দেশের জন্য অশনি সংকেত। বৃহস্পতিবার তিনি এসব কথা বলেন।

বাম ঐক্যর সমন্বয়ক এ সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে লড়াই করার আহবান জানিয়ে ডা. এম এ সামাদ বলেন, নাগরিকপঞ্জি থেকে বাদ পড়া লোকেরা ‘ফরেনার্স ট্রাইব্যুনালে’ আপিল করতে পারবে। সেখানে ব্যর্থ হলে হাইকোর্টে, পরে সুপ্রীম কোর্টে যেতে পারবে। ট্রাইব্যুনালে আপিল করতে ৪০ হাজার রুপি খরচ হবে, গরীব মানুষদের পক্ষে এতো টাকা খরচ করে নাগরিকত্ব প্রমাণ করা সম্ভব নয়। আমরা মনে করছি এদেরকে বাংলাদেশি আখ্যা দিয়ে দেশে পুশইন করার।

তিনি বলেন, ইতিমধ্যেই আসামের মূখ্যমন্ত্রী বলেছেন- এই ১৯ লাখ বাংলাদেশি এবং বাংলাদেশের সরকারের সাথে এদের ফেরত নেয়ার ব্যাপারে আলোচনা করবেন। এতেই তাদের দুরভিসন্ধির প্রমাণ মিলে। তা বাস্তবায়নে লাখ লাখ অসহায় মানুষ উদ্বাস্তু হবে, রাস্তায় মারা যাবে, কারাগারে বন্দী হবে, সর্বোপরি এই অঞ্চলে সাম্প্রদায়িক উত্তেজনা আরও বাড়বে। আসামের নাগরিকপঞ্জির চূড়ান্ত সমাধানের পর তা আরও বাড়বে। সম্পাদনা : আহসান/ মুসবা

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত