প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

নরসিংদীতে ৩২৬ কোটি টাকা ব্যয়ে হচ্ছে আধুনিক কারাগার

মো. আখতারুজ্জামান : নরসিংদী জেলায় আধুনিক সুযোগ-সুবিধা সম্বলিত নতুন কারাগার তৈরির উদ্যোগ নিয়েছে সরকার। এ বিষয়ে মঙ্গলবার একটি প্রকল্প জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটির (একনেক) সভায় অনুমোদন হয়েছে।

পরিকল্পনা কমিশন সূত্রে জানা গেছে, নতুন এ কারাগারে থাকবে আধুনিক তথ্যপ্রযুক্তির ব্যবহার। যার মাধ্যমে কারা বন্দিদের সর্বোচ্চ নিরাপত্তা দেয়া হবে। এসব প্রযুক্তির মাধ্যমে বন্দিদের গতিবিধি, কারাগারের ভেতর ও বাইরে পর্যবেক্ষণ করা হবে। এখন যে সব কারখানা রয়েছে সেখানে করা রক্ষিদের জন্য তেমন আবাসন ব্যবস্থা নেই। এ কারাগারের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের জন্য পারিবারিক আবাসনের ব্যবস্থা রাখা হয়েছে। সেই সঙ্গে থাকবে একক বাসস্থানেরও ব্যবস্থা। নরসিংদী জেলার নতুন এ কারাগারটি হলে বন্দি ধারণ ক্ষমতা বাড়বে।

স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সুরক্ষা সেবা বিভাগের উদ্যোগে এ প্রকল্পটি বাস্তবায়ন করবে কারা অধিদপ্তর ও গণপূর্ত অধিদপ্তর। এটি বাস্তবায়নকাল চলতি বছরের জানুয়ারি থেকে ২০২১ সালের ডিসেম্বর পর্যন্ত। কারাগারটি নির্মাণে খরচ হবে ৩২৬ কোটি ৯৮ লাখ ৪৩ হাজার টাকা।

প্রকল্পের মাধ্যমে প্রধান যে সব কাজ করা হবে সেগুলো হলো- তিন লাখ ২৪ হাজর ৭৮৯ ঘনমিটার ভূমি উন্নয়ন, পুরুষ বন্দিদের জন্য দুইটি ৬তলা ভবনের ব্যারাক নির্মাণ; সাজাপ্রাপ্ত বন্দিদের জন্য একটি ছয়তলা ভবনের বন্দিশালা নির্মাণ; পুরুষ বন্দিদের জন্য একটি চারতলা ভবনের ব্যারাক ও একটি ১০০ শয্যার হাসপাতাল নির্মাণ, মানসিক সমস্যায় আক্রান্ত বন্দিদের জন্য একটি দুইতলা ভবনের ব্যারাক নির্মাণ করা হবে। সেই সাথে কারাগারটিতে মহিলা বিচারাধীন ও সাজাপ্রাপ্ত বন্দিদের জন্য একটি পাঁচতলা ভবন নির্মাণ, নারী বন্দিদের জন্য একটি দুইতলা ভবনের সেল নির্মাণ, নারী শ্রেণিপ্রাপ্ত ও কিশোরী বন্দিদের জন্য একটি চারতলা ভবন নির্মাণ, স্বজনদের সঙ্গে বন্দিদের দেখা করার জন্য একটি তিনতলা ভবন নির্মাণ করা হবে।

অন্যদিকে কারাগারের প্রশাসনিক কার্যক্রম পরিচালনায় একটি তিনতলা ভবন নির্মাণ, ব্যাচেলর অফিসার্সদের জন্য একটি তিনতলা ভবন নির্মাণ, ১২৫০ বর্গফুট, ১০০০ বর্গফুট ও ৮০০ বর্গফুট আয়তনের একটি করে পাঁচতলা কোয়ার্টার এবং ৬৫০ বর্গফুট আয়তনের ১০তলা দুইটি আবাসিক কোয়ার্টার নির্মাণ, একটি চারতলা ভবন নির্মাণ যেখানে বন্দিদের জন্য ওয়ার্কশেড স্টোর, লন্ড্রি ও সেলুনের ব্যবস্থা থাকবে। বন্দিদের দেখতে আসা দর্শনার্থীদের অপেক্ষা করার ঘর নির্মাণসহ আরও বেশি কিছু কাজ করা হবে।সম্পাদনা: অশোকেশ রায়

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত