প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

খুলনার কোনো হাসপাতালোতেই নিজস্ব বর্জ্য ব্যবস্থাপনা নেই

শেখ নাঈমা জাবীন : খুলনার সরকারি বেসরকারি হাসপাতাল গুলো থেকে একটি বেসরকারি সংগঠন বর্জ্য সংগ্রহ করে ফেলে দেয় সিটি কর্পোরেশনের ভাগাড়ে। এ অব্যবস্থাপনার কথা স্বীকার করেছেন খোদ সিভিল সার্জেন। তিনি বলছেন হাসপাতালগুলোতে ওয়েস্ট ট্রিটমেন্ট প্লান্ট বসাতে না পারলে ভয়াবহ হবে বর্জের দূষন। একাত্তর টিভি

খুলনার জেনারেল হাসপাতালের সামনের রাস্তা। আশেপাশের বর্জ্যসহ হাসপাতালের বর্জ্য ফেলা হয় এখানেই। যা নিয়ে ক্ষোভ পথচারিসহ হাসপাতালের কর্মীদেরও। হাসপাতালের ভেতরেও যেখানে সেখানে পড়ে থাকে বর্জ্য।

খুলনার বেসরকারি একটি ডায়গনিস্টিক সেন্টারের পরিচালক মোহাম্মদ লিয়ন বলেন, ক্লিনিকের বর্জ্য বাইরে ফেললে পরিবেশসহ মানবদেহের নানা ক্ষতি হয়, ছড়ায় নানা রোগব্যাধি। কিন্তু তারা নিজেরাই সচেতন নয়।

তিনি বলেন, ‘ক্লিনিকের বর্জ্যে অনেক ধরণের টিউমার থাকে, অনেক সময় ক্যান্সারের টিউমার থাকে। এগুলো যদি ডাস্টবিনে বা যেখানে সেখানে ফেলা হয় তাহলে বাতাসের মাধ্যমে জীবানু ছড়িয়ে মানুষের রোগবালাই সৃষ্টি করে।’
আর খুলনার সিভিল সার্জেন ডা. আব্দুর রাজ্জাক বলেন, সবগুলো হাসপাতালে ওয়েস্ট ট্রিটমেন্ট প্লান্ট বসাতে পারলে অব্যবস্থাপনা দূর হবে।

তিনি বলেন, ‘বর্জ্যরে রেসিডিউর খুবই ক্ষতিকর। আমরা ট্রিটমেন্ট প্লান্ট ব্যবহার করে এর সমাধান করতে পারি। আমার জানা মতে যশোরের চৌগাছায় বর্জের জন্য ওয়েস্ট ম্যানেজমেন্ট প্লান্ট আছে।’

খুলনা জেলা ও মহানগরীতে সরকারী বেসরকারি মিলিয়ে হাসপাতালগুলোতে প্রতিদিন বর্জ্য তৈরি হয় অন্তত ৩ টন। সম্পাদনা : খালিদ আহমেদ

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ