প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

চীন সফর নিয়ে জটিলতা কেটেছে আওয়ামী লীগের

সমীরণ রায় : আগামী ৪ সেপ্টেম্বর চীন সফরে যাচ্ছে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের একটি প্রতিনিধি দল। চায়না কমিউনিস্ট পার্টির আমন্ত্রণে সেদেশে যাচ্ছে দলটি। তবে কোনো ধরনের জটিলতা ছাড়াই গত কয়েক বছরে বেশ কয়েকটি সফরে করেছে আওয়ামী লীগের প্রতিনিধি দল। কিন্তু এবার চীন সফর নিয়ে বেশ কিছু জটিলতা দেখা দেয় দলটিতে। প্রথমদিকে দুয়েকজন ছাড়া দলটির কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সংসদের কেউই চীন সফরে যেতে চাচ্ছিলেন না। শুধু তাই নয়, প্রতিনিধি দলের নেতা কে হবেন, তা নিয়েও দেখা দেয় দ্বিধা-দ্বন্দ্ব। তবে সব শেষে দলটির সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য আব্দুল মতিন খসরুর নেতৃত্বে ২০ সদস্যের প্রতিনিধি দল চীন সফরে যাচ্ছেন।

জানা গেছে, সফরকে সামনে রেখে প্রথমে আওয়ামী লীগের দফতর সম্পাদক ড. আব্দুস সোবহান গোলাপকে দলনেতা ঠিক করা হয়। কিন্তু পরে ঘোষণা আসে, প্রতিনিধি দলের নেতৃত্ব দেবেন সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য আব্দুল মতিন খসরু। তখন গোলাপ কৌশলে প্রতিনিধি দল থেকে নাম প্রত্যাহার করে নেন। তবে গত রোববার রাতে দলের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরের সভাপতিত্বে এক বৈঠকে সব জটিলতার অবসান হয়। ওই বৈঠকে আব্দুল মতিন খসরু, আব্দুস সোবহান গোলাপসহ প্রতিনিধি দলের অধিকাংশ সদস্য উপস্থিত ছিলেন। তবে বৈঠকে উপস্থিত থাকলেও শেষ পর্যন্ত চীন যাচ্ছেন না আব্দুস সোবহান গোলাপ।
এদিকে, আগামী অক্টোবরে আওয়ামী লীগের ভারত সফরে যে প্রতিনিধি দল যাওয়ার কথা রয়েছে, তাতে যেতে চান বেশির ভাগ নেতা। গত সফরে প্রতিনিধি দলে কেন্দ্রীয় নেতাদের বাইরে কেউ ছিলেন না। কিন্তু এবারই প্রথম মহানগরের দ্বিতীয় সারির দুই নেতা, সংরক্ষিত মহিলা আসনের দু’জন সংসদ সদস্য এবং চারজন সাংবাদিক যাচ্ছেন এই প্রতিনিধি দলে।

আওয়ামী লীগ সূত্র জানায়, আব্দুল মতিন খসরুর নেতৃত্বে প্রতিনিধি দলে আছেন তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক আফজাল হোসেন, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি সম্পাদক ইঞ্জিনিয়ার আব্দুস সবুর, ক্রীড়া সম্পাদক হারুনুর রশীদ, উপ-প্রচার সম্পাদক আমিনুল ইসলাম, কেন্দ্রীয় সদস্য দীপংকর তালুকদার, অ্যাডভোকেট আজমত উল্লাহ, অ্যাডভোকেট এ বি এম রিয়াজুল কবীর কাওছার, রফিকুর রহমান, আমিরুল ইসলাম মিলন, ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক কামাল চৌধুরী, উত্তরের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি সম্পাদক নাজমুল আলম, আওয়ামী লীগের আন্তর্জাতিক বিষয়ক উপ-কমিটির সদস্য ড. সেলিম মাহমুদ ও তরুন কান্তি দাস, সংরক্ষিত আসনের সংসদ সদস্য অপরাজিতা হক ও বাসন্তি চাকমা এবং চার সাংবাদিক। এর মধ্যে তরুন কান্তি দাস আবার চায়না আওয়ামী লীগের সভাপতি।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ