প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

নারীকে বিচার করতে হবে মেধা, মনন ও প্রজ্ঞা দিয়ে, শাড়ি দিয়ে নয়, বললেন নাসিমুন আরা হক মিনু

বাংলাদেশ নারী সাংবাদিক কেন্দ্রের সভাপতি নাসিমুন আরা হক মিনু বলেছেন, অধ্যাপক আবদুল্লাহ আবু সায়ীদ একজন সম্মানী ব্যক্তি। তিনি শাড়ি নিয়ে যে লেখাটি লিখেছেন তা একেবারেই আপত্তিকর, রুচিহীন।

অধ্যাপক আবদুল্লাহ আবু সায়ীদ, বাঙালি মেয়েদের পোশাক হিসেবে শাড়িকে ‘পৃথিবীর সবচেয়ে যৌনাবেদনপূর্ণ অথচ শালীন পোশাক’ হিসেবে উল্লেখ করেছেন। এ বিষয়ে সিনিয়র সাংবাদিক নাসিমুন আরা মিনু বলেন, তার এই লেখা ভীষণভাবে আপত্তিকর ও কুরুচিপূর্ণ। এই ধরনের লেখা বা ভাবনা সমাজের জন্যে ভয়ঙ্কর ক্ষতিকর।

তিনি বলেন, শাড়ি পরতে ভালো লাগে তাই শাড়ি পরি। শাড়ি হলো প্রত্যেকের আবেগের জায়গা। প্রত্যেক মানুষ তার মায়ের শাড়ির আঁচল ধরে খেলা করেছে। কেউবা প্রেয়সির শাড়ির আঁচলে মুখ লুকিয়েছে।

বাংলাদেশ নারী সাংবাদিক কেন্দ্রের সভাপতি আরো বলেন, আমরা বাঙ্গালি হিসাবে যুগ যুগ ধরে শাড়ি পরে আসছি। আমাদের মা, খালা, দাদিরা শাড়ি পরেই দিন যাপন করেছে। শাড়ি আমাদের দেশের একটি সংস্কৃতি। ঐতিহ্য। এ দেশের ভাষা ও সংস্কৃতির জন্যে আমাদের লড়াই করতে হয়েছে। আমি মনে করি শাড়ি এ দেশ থেকে উঠে না যাক। আমি সব সময় শাড়ি পরি। শাড়ি পরতে ভাল লাগে তাই পরি। অন্য কারো জন্যে না। শাড়ি পরে পাহাড়ে, দেশের বিভিন্ন স্থানে এমনকি বিদেশেও ভ্রমণ করি।

তিনি বলেন, শাড়ি একটি পোশাক। এটি পুরুষের আবেদনের জন্যে নয়। পুরুষের ভালোলাগার জন্যেও নয়। প্রত্যেক পুরুষের নারীদের প্রতি শ্রদ্ধাবোধ থাকা উচিত। অধ্যাপক আবদুল্লাহ আবু সায়ীদের লেখা পড়ে মনে হলো তার নারীদের প্রতি কোন শ্রদ্ধাবোধ নেই। উনাকে বুঝতে প্রত্যেকটা শাড়ির এক একটি গল্প আছে। স্মৃতি আছে। আমরা শাড়ি পরা শেষে তা জমিয়ে রাখি। কাঁথা সেলাই করি। যা আমাদের উষ্ণতা দেয়। শাড়ি নিয়ে অধ্যাপক আবদুল্লাহ আবু সায়ীদের লেখা অবান্তর প্রলাপ। এটা উনার কাছে প্রত্যাশা করি না। উনার উচিত নারীর প্রতি তার মানসিকতার পরিবর্তন করা।

‘আবদুল্লাহ আবু সায়ীদ শাড়ির কথা লিখতে গিয়ে যেভাবে বাংলাদেশি নারীর চেহারা, উচ্চতা, শারীরিক গঠন নিয়ে, মন্তব্য করেছেন তা রীতিমতো নারীর শরীর নিয়ে মারাত্মক অপমানজনক। তার উচিত নিশঃর্তভাবে ক্ষমা চাওয়া। তার মতো একজন সম্মানীয় মানুষের কাছ থেকে এমন মন্তব্য ও ভাষা মেনে নেয়া যায় না। তিনি বলেন, নারীকে বিচার করতে হবে মেধা, মনন ও প্রজ্ঞা দিয়ে। শাড়ি দিয়ে নয়।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত