প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

শুভেচ্ছা সফরে শ্রীলংকান নৌ-যুদ্ধজাহাজ ‘সায়ুরা’ ও ‘নন্দিমিত্র’

ইসমাঈল ইমু : চারদিনের এ সফরে জাহাজ দুটি সোমবার সকালে চিটাগাং ড্রাই ডক লিমিটেডের জেটিতে এসে পৌঁছায়। এ সময় নৌ-বাহিনীর সুসজ্জিত বাদক দল ঐতিহ্যবাহী রীতিতে ব্যান্ড পরিবেশন করে জাহাজ দুটিকে স্বাগত জানায়। পরে চট্টগ্রাম নৌ-অঞ্চলের চিফ স্টাফ অফিসার ক্যাপ্টেন এম আব্দুস সামাদ জাহাজ দুটির অধিনায়কদের ফুল দিয়ে অভ্যর্থনা জানান। এর আগে বাংলাদেশের জলসীমায় এসে পৌঁছালে নৌবাহিনী জাহাজ ‘দূর্জয়’ তাদের অভ্যর্থনা জানায়।

জাহাজ দুটিতে প্রশিক্ষণার্থী কর্মকর্তাসহ মোট ২৪৭ জন নৌ-সদস্য রয়েছেন। শ্রীলংকান নৌবাহিনীর অফসোর পেট্রোল ভেসেল ‘সায়ুরা’ এর অধিনায়ক হিসেবে ক্যাপ্টেন নীলানথা হিওয়াভিথারান এবং ফাস্ট মিসাইল ভেসেল ‘নন্দিমিত্র’ এর অধিনায়ক হিসেবে ক্যাপ্টেন বুদ্ধিকা লিয়ানাগমেজ দায়িত্ব পালন করছেন।

বাংলাদেশে অবস্থানকালে জাহাজ দুটির অধিনায়করা চট্টগ্রাম নৌ-অঞ্চলের কমান্ডার, বিএন ফ্লিটের কমান্ডার এবং চট্টগ্রাম বন্দর কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যানের সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ করবেন। এছাড়া সফরের অংশ হিসেবে জাহাজের কর্মকর্তা ও নাবিক নৌ-বাহিনী জাহাজ সমুদ্র জয়, বাংলাদেশ নেভাল একাডেমি, স্কুল অব মেরিটাইম ওয়ারফেয়ার অ্যান্ড ট্যাকটিস (এসএমডব্লিউটি), বানৌজা শহীদ মোয়াজ্জম ঘাঁটিসহ নৌ-বাহিনী পরিচালিত বিশেষ চাহিদা সম্পন্ন শিশুদের স্কুল ‘আশার আলো’ এবং চট্টগ্রামের বিভিন্ন ঐতিহাসিক পর্যটন এলাকা পরিদর্শন করবেন। তাছাড়া বাংলাদেশ ও শ্রীলংকা নৌ-বাহিনীর প্রশিক্ষণার্থী ক্যাডেটদের অংশগ্রহণে প্রীতি বাস্কেটবল খেলা অনুষ্ঠিত হবে।

শ্রীলংকান নৌ-বাহিনী জাহাজ দুটির এই শুভেচ্ছা সফরের মাধ্যমে বাংলাদেশ ও শ্রীলংকা নৌবাহিনীর কর্মকর্তা, প্রশিক্ষণার্থী ও নাবিকদের পারস্পরিক বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক আরও সুদৃঢ় হবে বলে আশা করা যায়।  চারদিনের শুভেচ্ছা সফর শেষে জাহাজ দুটির আগামী ২৯ আগস্ট বাংলাদেশ ত্যাগ করার কথা রয়েছে। সম্পাদনা: অশোকেশ রায়

 

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত