প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

অভিনেতা খলিলুর রহমান বাবর মারা গেছেন

ইমরুল শাহেদ : অভিনেতা, পরিচালক ও প্রযোজক খলিলুর রহমান বাবর, যিনি বাবর নামেই দর্শকের কাছে সমধিক পরিচিত সোমবার সকাল নয়টায় ঢাকার স্কয়ার হাসপাতালে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন (ইন্নালিল্লাহে ওয়াইন্নাইলাহে রাজিউন)। মৃত্যু কালে তার বয়স হয়েছিল ৬৭ বছর। তিনি স্ত্রী এক ছেলে এবং মেয়ে রেখেছেন। তার দুই সন্তানের মধ্যে মেয়ে বড়।

বাবর দীর্ঘদিন যাবৎ অসুস্থ ছিলেন। ভুগছিলেন উচ্চ রক্তচাপ, ডায়াবেটিস, হৃদ্রোগ ও ফুসফুসের সমস্যায়। গত ৩০ এপ্রিল অসুস্থতা বেড়ে গেলে তাকে কমফোর্ট হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। চিকিৎসকেরা জানান, সে সময় তার গ্যাংগ্রিনের অপারেশন করাতে হয়। এরপর ডাক্তারের পরামর্শে তার বাঁ পায়ের তিনটি আঙুল কেটে বাদ দেওয়া হয়। সর্বশেষ গত জুন মাসে অস্ত্রোপচার করে তার বাঁ পায়ের হাঁটু থেকে নিচের অংশ কেটে ফেলা হয়। চিকিৎসা শেষে তিনি বাসায় ফিরে যান।

তবে গত বৃহস্পতিবার তিনি হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিলেন। ধীরে ধীরে তার অবস্থার অবনতি ঘটতে থাকে। সোমবারই তাকে আগারগাঁওয়ের ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব নিউরো সায়েন্সেস ও হাসপাতালে নেওয়ার প্রস্তুতি নিয়েছিলেন স্বজনেরা।

বাবরের নামাজে জানাজা আজ বাদ আসর বাংলাদেশ চলচ্চিত্র উন্নয়ন করপোরেশন (বিএফডিসি) প্রাঙ্গণে অনুষ্ঠিত হবে। মিরপুরের বুদ্ধিজীবী কবরস্থানে তাকে দাফন করা হবে বলে জানা গেছে।

অভিনেতা বাবরের চলচ্চিত্র ক্যারিয়ার শুরু হয় আমজাদ হোসেন পরিচালিত বাংলার মুখ। নিয়মিত অভিনেতা হিসেবে তিনি আত্মপ্রকাশ করেন রাজ্জাক প্রযোজিত ও জহিরুল হক পরিচালিত রংবাজ ছবি দিয়ে। এরপর তিনি প্রায় তিন শতাধিক ছবিতে অভিনয় করেন। ‘দাগী’ নামের একটি সিনেমা প্রযোজনা করেছিলেন তিনি। পরিচালনা করেছিলেন একমাত্র ছবি ‘দয়াবান’। তবে অভিনেতা হিসেবে সর্বশেষ তাকে দেখা গিয়েছে প্রায় এক যুগ আগে নির্মিত ডিপজলের ‘তের গুণ্ডা এক পাণ্ডা’ চলচ্চিত্রে। অসুস্থতার কারণে তিনি দীর্ঘদিন সিনেমাজগতের বাইরে ছিলেন।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত