প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

স্টোকসের বীরত্বে রেকর্ড জয়ে অ্যাশেজে সমতা আনলো ইংল্যান্ড

আক্তারুজ্জামান : হেডিংলি টেস্টের নায়ক কাকে বলবেন? বেন স্টোকসকে নাকি জ্যাক লিচকে? যদি উত্তর যে কোনো একজন হয় তবে আপনি ভুল। কেননা লিডসের হেডিংলিতে যে রূপকথা জন্ম নিয়েছে তার নায়ক কিন্তু দুজনই। স্টোকস কিংবা লিচের মধ্যে যে কোনো একজন একটুখানি ভুল করলেই যে রূপকথাটাই লেখা হতো না। বিশ^কাপে শিরোপা পাইয়ে দেয়ার পর অ্যাশেজেও ফিনিক্স পাখি হলেন স্টোকস। তবে পাশে পেয়েছেন জ্যাক লিচকে।

জয়ের জন্য তখনও ৭৬ রান দরকার ইংল্যান্ডের। ৩৬২ রানের লক্ষ্য দিয়ে ২৮৬ রানে ৯ উইকেট শিকার করে জয়োৎসবের পরিকল্পনা করছিলো অস্ট্রেলিয়া। কিন্তু জ্যাক লিচ ও বেন স্টোকস যে তাদের মঞ্চায়ন হয়ে থাকা জয়টা ছিনিয়ে নিবে তা কেউ ভাবেনি। এদুজনের নাটকীয় জুটিতে ভর করে অ্যাশেজের তৃতীয় টেস্ট জিতে ১-১ এ সমতা আনলো ইংল্যান্ড। আর এ জয়ে নতুন রেকর্ডও গড়লো ইংলিশরা। তিনশ বা তার বেশি রানের লক্ষ্য নিয়ে এই প্রথম টেস্ট জিতলো তারা।

আজ চতুর্থদিনের খেলা চলছিলো। এক উইকেট হাতে আছে এমন সময় সহযোদ্ধা হিসেবে পেলেন স্পিনার জ্যাক লিচকে। ১০.২ ওভার খেললেন দুজন। ওয়ানডে স্টাইলে ব্যাটিং করে দলকে জয় পাইয়ে দিলেন তারা। ৭৬ রানের পার্টনারশিপে মাত্র ১ রান করেন লিচ। বাকি ৭৫ রানসহ মোট ১৩৫ রানে অপরাজিত ছিলেন বিশ^কাপ হিরো স্টোকস।

লিডসে যেভাবে পেসাররা দাপট দেখাচ্ছিলেন তাতে ফলাফল বের হবে এটা নিশ্চিত ছিলো। অস্ট্রেলিয়া প্রথম ইনিংসে ১৭৬ রানে গুটিয়ে যাওয়ার পর ইংল্যান্ড অলআউট হয়েছিলো মাত্র ৬৭ রানে। ১১২ রানে এগিয়ে থেকে দ্বিতীয় ইনিংসে ২৪৬ রান তোলায় ইংল্যান্ডের সামনে লক্ষ্য দাঁড়ায় ৩৬২।
দ্বিতীয় ইনিংসে নেমে ১৫৯ রানের পর জো রুট যখন ফিরে গেলেন তখনই জয়ের গন্ধ পাচ্ছিলো ডেভিড ওয়ার্নাররা। কিন্তু তখনও নাটকের অনেক দৃশ্যায়ন বাকি ছিলো।

জনি বেয়ারস্টোকে নিয়ে ৮৫ রানের জুটি গড়ে দলকে ভালো অবস্থানে নেন স্টোকস। বেয়ারস্টো ফিরে গেলে বাটলার ও ওকস দ্রুত ফিরে আশার আলোতে পানি ঢেলে দেন। আরচারকে নিয়ে আরও ২৫ রান যোগ করেন ইংলিশ ক্রিকেটের ব্যাডবয়। আরচার ও ব্রড পরপর দুবলে ফিরে গেলে উৎসবের জন্য প্রস্তুতি নিয়েছিলো অজিরা। কিন্তু ওই যে শুরুতে বলে আসা দুই নায়কের রচিত রূপকথায় মলিন মুখে মাঠ ছাড়তে হয় অস্ট্রেলিয়ার।

সংক্ষিপ্ত স্কোরকার্ড : অস্ট্রেলিয়া-প্রথম ইনিংস : ১৭৬/১০, (লাবুশ্চানে ৭৪, ওয়ার্নার ৬৪, আরচার ৬/৪৫, ব্রড ২/৩২) ও ‍দ্বিতীয় ইনিংস-২৪৬/১০ (লাবুশ্চানে ৮০, ম্যাথু ওয়েড ৩৩, স্টোকস ৩/৫৬, আরচার ২/৪২)

ইংল্যান্ড প্রথম ইনিংস : ৬৭/১০, (জো ডেনলি ১২,হ্যাজেলউড ৫/৩০, কামিন্স ৩/২৩) দ্বিতীয় ইনিংস- (লক্ষ্য ৩৬২/৯) (স্টোকস ১৩৫, জো রুট ৭৭, জো ডেনলি ৫০, হ্যাজেলউড ৪/৮৫, নাথান লায়ন ২/১৩২)

পাঁচ ম্যাচ সিরিজের চতুর্থ টেস্ট শুরু হবে আগামী ৪ সেপ্টেম্বর ম্যানচেস্টারে।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত