প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

অ্যামাজন রক্ষায় ব্যর্থ হলে ব্রাজিলের সঙ্গে ইইউ বাণিজ্য চুক্তি বাতিলের হুমকি ফ্রান্স ও আয়ারল্যান্ডের, লন্ডন ও প্যারিসে বিক্ষোভ

আসিফুজ্জামান পৃথিল : দাবানলে জ্বলছে বিশ্বের বৃহত্তম বর্ষাবন। অ্যামাজনের ইতিহাসের বৃহত্তম এই দাবানলে পুড়ে ছাই হয়ে যেতে পারে ৮০ শতাংশ বনভূমি। পৃথিবীর ফুসফুস যখন জ¦লছে, তখন একে রক্ষার কোনো ধরণের উদ্যোগই নেই ব্রাজিল সরকারের। এতেই ক্ষেপেছে সচেতন মহল। ফ্রান্স এবং আয়ারল্যান্ড জানিয়ে দিয়েছে অ্যামাজন রক্ষায় ব্যর্থ হলে তারা ইউরোপীয় ইউনিয়নের বাণিজ্য চুক্তি থেকে বাদ দেবে ব্রাজিলকে। বিবিসি, রয়টার্স

ফরাসী প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাঁক্রো জানিয়েছেন ব্রাজিলিয়ান প্রেসিডেন্ট জায়ার বলসানরো তাকে এই কঠোর সিদ্ধান্ত নিতে বাধ্য করেছেন। এর আগে তিনি বলেছিলেন, অ্যামাজন ব্রাজিলের নিজস্ব বিষয় নয়। কারণ সারা পৃথিবীর ভাগ্য এই বনের সঙ্গে বাধা। জবাবে বলসানরো বলেছেন, অ্যামাজন ধ্বংস হয়ে গেলেও তা তার আওতার বাইরে। কারণ এতো বড় বন রক্ষার ক্ষমতা তার নেই। এতেই ক্ষেপেছে জলবায়ু সচেতন ব্যক্তিরা। আগে থেকেই পরিবেশবাদী গ্রুপগুলো বলে আসছে বলসানরোর রাজনীতির সঙ্গে এই আগুনের সম্পর্ক আছে। তবে তিনি তা অস্বীকার করে আসছেন। বলসানরো নিজের রাজনীতির শুরু থেকেই অ্যামাজনকে ব্রাজিলের জন্য অপ্রয়োজনীয় বোঝা বলে আখ্যা দিয়ে আসছিলেন। তিনি মনে করেন এই বন অযথা জায়গা নষ্ট করছে। এটি না থাকলে ব্রাজিল আরো সয়াবিন ও পশু উৎপাদন করতে পারবো। অ্যামাজনের পরিসর কমিয়ে আনা ছিলো বলসানরোর অন্যতম নির্বাচনী প্রতিশ্রুতি। তবে বলসানরো দায় চাপাচ্ছেন এনজিও ও পরিবেশবাদী সংগঠনগুলোর উপর। তার দাবি তাকে ছোট করতেই এরা বনে আগুন দিয়েছে!

এদিকে ফ্রান্সের প্যারিসের ব্রাজিল দূতাবাসের সামনে শুক্রবার বিক্ষোভ করেছে কয়েকহাজার পরিবেশবাদী। বিশে^র বৃহত্তম বর্ষাবন অ্যামাজনকে দাবানল থেকে রক্ষার দাবিতে এই বিক্ষোভ অনুষ্ঠিত হয়। একই ধরণের ঘটনা ঘটে লন্ডনেও। বিক্ষোভকারীরা বলছেন বলসানরো অ্যামাজান, পরিবেশ এবং মানবতার শত্রু। নিজ স্বার্থে দিনি পৃথিবীর ফুসফুসকে জ¦ালিয়ে দিচ্ছেন। তারা বলসানরোর সর্বোচ্চ শাস্তি দাবি করেন। সম্পাদনা : আহমেদ শাহেদ

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত