প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

আনসার আল ইসলামের সুসাইডাল স্কোয়াডের সদস্য গ্রেপ্তার

সুজন কৈরী : নিষিদ্ধ জঙ্গি সংগঠন আনসার আল ইসলামের শীর্ষ জঙ্গী (আত্মঘাতি) ও আইটি শাখার একজন সদস্যকে গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাব-২। গ্রেপ্তার জঙ্গি হলো- মীর শহীদুল ইসলাম আতিক (২৪)। ব্যাটালিয়নটি জানায়, গুরুত্বপূর্ণ জঙ্গি হামলা বা হামলার চেষ্টা সংক্রান্ত কিছু মামলার তদন্ত করছে র‌্যাব। গত মাসে নিষিদ্ধ আনসার আল ইসলামের আত্মঘাতি সেলের কয়েকজন শীর্ষ জঙ্গিকে র্যাব গ্রেপ্তার করে। তাদের কাছ থেকে জিজ্ঞাসাবাদে পাওয়া তথ্যে র‌্যাব-২ এর একটি দল কেরানীগঞ্জের পূর্ব চড়াইল সাকিনের চেয়ারম্যান বাড়ি গলির সামাদ ব্যাপারির বাসার নীচতলা থেকে মীর শহীদুল ইসলাম আতিককে গ্রেপ্তার করা হয়। তার কাছ থেকে বিভিন্ন শিরোনামের ৭ টি ধর্মীয় উগ্রবাদী বই, ২টি মোবাইল ফোন ও বিপুল পরিমাণ ধর্মীয় উগ্রবাদী বই, ডাবিংকৃত ছবির ভিডিও ও সরঞ্জামাদি উদ্ধার করা হয়।

র‌্যাব-২ জানায়, মামলাগুলোর বিবরণ ও জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায়, মীর শহীদুল ইসলাম আতিক ধর্ম ভিরু সহজ সরল ব্যক্তিদের সন্ত্রাসী কার্যক্রম, নাশকতা সৃষ্টি ও জিহাদে উদ্বুদ্ধ করার চেষ্টা করছিলেন। তিনি নিষিদ্ধ ঘোষিত উগ্র ইসলামী জঙ্গীবাদী ও জিহাদী বই, আফগানিস্থান বা সিরিয়া বা ইসলামী খেলাফত প্রতিষ্ঠার নামে যুদ্ধকবলিত দেশের যুদ্ধের ভিডিও প্রচার, সমরাস্ত্র ট্রেনিং ম্যানুয়াল ও প্রচারপত্র নিজেদের দখলে রেখে ও প্রচার করে, ইসলামী খেলাফত প্রতিষ্ঠার নামে দি রিলিজ নামক ছবির তরবারী যুদ্ধের চুম্বকাংশ বাংলায় ডাবিং/নতুন করে কন্ঠ জুড়ে শ্যুটিং করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ব্যাপক প্রচারের মাধ্যমে জিহাদে উদ্ধুব্ধ করার অপচেষ্টার মাধ্যমে যুবক-যুবতীদের জঙ্গী সংগঠনে ভিড়ানোর লক্ষে কার্যক্রম চালিয়ে ও তাদের অর্থ যোগান দিয়ে আসছেন।

র‌্যাব-২ এর এসপি মুহম্মদ মহিউদ্দিন ফারুকী জানান, গ্রেপ্তার মীর শহীদুল ইসলাম আতিক জিজ্ঞাসাবাদে জানিয়েছেন, তিনি দীর্ঘদিন ধরে ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ স্থাপনার নির্মাণ কাজে পাথর, কংক্রিট, বালু ও লেবার সরবরাহের নিমিত্তে সাব-কন্ট্রাক্টর হিসেবে কাজ করে তার সংগঠনের পলাতক সদস্যদের বিভিন্ন ভাবে আড়াল ও পুনর্বাসন করছেন। তিনি মূলত রাজধানীর বকসী বাজারে অবস্থিত সরকারি আলিয়া মাদ্রাসায় কামিল (মার্ষ্টাস) শ্রেনীতে তাফসির বিভাগের ছাত্র।

র‌্যাব কর্মকর্তা ফারুকী জানান, গ্রেপ্তার মীর শহীদুল ইসলাম আতিকের বিরুদ্ধে চট্টগ্রামের বন্দর থানায় সন্ত্রাস বিরোধী আইনে মামলা রয়েছে। শহীদুলকে ওই মামলায় গ্রেপ্তার দেখিয়ে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তার কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত