প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

পেঁয়াজের মৌসুম শেষ হওয়ায় বাড়ছে পেঁয়াজের বাজার দর

মৌরী সিদ্দিকা : দেশি পেঁয়াজের মৌসুম শেষ হওয়ায় বাড়ছে পেয়াজের বাজার দর। তাই ভারতীয় পেঁয়াজের চেয়ে কিছুটা বেশি দামেই ভোক্তাদের কিনতে হচ্ছে দেশি পেঁয়াজ। চ্যানেল ২৪

ব্যবসায়ী বলছেন, দেশি পেঁয়াজের সরবরাহ কমায় এবং ভারতীয় পেঁয়াজের আমদানি আগের চেয়ে কমায় বেড়েছে এর দাম। কিছুদিনের মধ্যে আরও দাম বাড়ার সম্ভাবনা রয়েছে বলে জানান ব্যবসায়ীরা।

পেঁয়াজ নিত্য প্রয়োজনীয়। এই পণ্যটির দাম কম ছিলো সপ্তাহখানেক আগেও। তবে মৌসুম শেষে দাম বেড়েছে। এক সপ্তাহ আগে পাইকারিতে যা বিক্রি হতো কেজি প্রতি ৪০ টাকারও কম দামে তা এখন পাওয়া যাচ্ছে ৫০ থেকে ৫২ টাকায়। ভারতীয় পেঁয়াজ মিলছে ৪৫ থেকে ৪৮ টাকায়। কেজিতে ১০ টাকা বেড়ে পাইকারিতে প্রতি কেজি রসুন বিক্রি হচ্ছে ১৪৮ থেকে ১৫০ টাকায়। তবে আদা বিক্রি হচ্ছে আগের দামেই। ব্যবসায়ীরা বলছেন, ভারত থেকে কম আমদানি এবং মৌসুম শেষ হওয়ায় পর্যাপ্ত সরবরাহ নেই বাজারে। তাই সহসাই কমছে না দাম।
দোকানিরা বলছে, সিজন থাকলে পেঁয়াজের দাম কম থাকতো। এখন সিজন নেই, পেঁয়াজও নেই। এ জন্যই পেঁয়াজের দাম বাড়ছে।

আরেক দোকানি বলেন, আমদানি কমার ফলে দাম বেশি। ভোক্তারা বলছেন, পেঁয়াজের দাম হঠাৎ বেড়ে যাওয়ায় নেতিবাচক প্রভাব পড়ছে দৈনন্দিন জীবনে।

এদিকে সপ্তাহ খানেকের ব্যবধানে খোলা চিনির দাম কেজিতে ৫ টাকা বেড়ে বিক্রি হচ্ছে ৫৫ টাকায়। যদিও প্যাকেটজাত চিনি বিক্রি হচ্ছে আগের দামেই অর্থাৎ ৬৫ টাকা কেজি। আর ভোজ্যতেলের দামেও পরিবর্তন নেই। সম্পাদনা : আহসান

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত