প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

পৃথিবীর মানুষের জ্ঞান-বিজ্ঞান কোথায় আর আমাদের হুজুররা কোথায়?

কামরুল হাসান মামুন : ‘আইনস্টাইন, নিউটন, গ্যালিলিও সব চোর। তারা কোরআন শরীফকে ইংরেজিতে অনুবাদ করে সব কিছু আবিষ্কার করছে।’ এই হলো আমাদের হুজুর নামক স্কলারদের চিন্তা-চেতনা আর জ্ঞান-বুদ্ধি। যিনি বলছেন, তিনি বড় একজন বড় স্কলার। তাকে আমি অনেকবার বিভিন্ন টেলিভশনে দেখেছি। নিচে তার বক্তব্যের কিছু অংশ হুবহু তুলে ধরার চেষ্টা করেছি। ওই একই কাজ এখন ভারতেও হচ্ছে।

‘বলে যে কলম্বাস আমেরিকা আবিষ্কার করছে। মিথ্যা কথা। ঢাহা মিথ্যা কথা। জার্মান এক টেলিভশন ওরা বলে ইতিহাসের সর্ববৃহৎ চুরির ঘটনা হলো মুসলিমদের আবিষ্কৃত জ্ঞান-বিজ্ঞানের সবচেয়ে বড় চুরির ঘটনা ঘটে ইউরোপিয়ানদের হাতে। এরা সব চুরি করে আরবির সব জিনিসকে ইংলিশে অনুবাদ করে করে নাম শুদ্ধো পাল্টাইয়া ফেলছে। এইগুলো চোর আইনস্টাইন একটা চোর। নিউটন আরেক চোরের নাম। গ্যালিলিও আরও বড় চোর। এগুলো সব চোর। কলম্বাস আমেরিকা আবিষ্কার করেনি। কলম্বাস আমেরিকায় গিয়ে আজান শুনেছে। কলোম্বাসেরও বহু আগে মুসলিমরা গিয়ে ওখানে সালাত কায়েম করেছে। আজান দিয়েছে। কলম্বাস হলো ভারত উপমহাদেশে সব হারিয়ে ফেলছে। কোনদিকে যাবে দিশেহারা। তখন সে অবিদ্রিসি তাকে মানচিত্র এঁকে আমেরিকা মহাদেশের পথ দেখিয়ে দিয়েছে। সে মানচিত্র ধরে ওখানে চলে গেছে। সেটা বাদ দেন। আমেরিকা মহাদেশের কথা কোরআন শরীফেই আছে। জুলকারনাইন বাদশা সর্ব প্রথম যখন বিশ্বের সর্ব পশ্চিমে চলে গেলেন। সূর্যকে দেখলেন দূর থেকে একটা ঘোলাটে পানির জলাশয়ের মধ্যে যেন সূর্যটা ডুবে যাচ্ছে। মনে হচ্ছিলো এ রকম। এই এলাকা পৃথিবীতে একটাই আছে। আমেরিকার উত্তর আমেরিকার উত্তরে সর্ব উত্তর এলাকা। সেখানে ১৩০০০ আগ্নেয়গিরি থেকে অগ্নুৎপাত হয়। ধোঁয়ায় গোটা আকাশ ছেয়ে থাকে। আচ্ছন্ন হয়ে থাকে। বিকালে যখন সূর্য ডুবে মনে হয় যেন সূর্য গাদলা ঘোলা একটা কূপের মধ্যে ডুব দিচ্ছে। আসলে সূর্য যাচ্ছে আকাশে।’ আর নিতে পারছি না তাই এখানে থামলাম।

এবার বোঝেন পৃথিবীর মানুষের জ্ঞান-বিজ্ঞান কোথায় আর আমাদের হুজুররা কোথায়? কেন মুসলমানরা আজ নির্যাতিত, অবহেলিত, লুণ্ঠিত, বঞ্চিত তার সব কারণ তার বক্তব্যেই পাওয়া যায়। বর্তমান বিশ্বে বলদের কোনো স্থান নেই। জ্ঞানই ক্ষমতা। এ ধরনের আহাম্মকেরা যদি আমাদের ওয়াজ নসিহত করে তাহলে জ্ঞান-বুদ্ধিতে আমরা কি করে সামনে যাবো। এদের কাজই হলো অন্য ধর্মকে গালাগালি করা, নারীদের গালাগালি করা, বিশ্ববরেণ্য বিজ্ঞানীদের সেরা আবিষ্কারককে চোর বলে গালি দেয়া আর তাদের আবিষ্কারগুলোকে অস্বীকার করা। ওরা যদি কোরআনকে অনুবাদ করে এতো কিছু করে ফেলতে পারেতো আপনারা পারেন না কেরে গর্ধব কোথাকার? ফেসবুক থেকে

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত