প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

জাকির নায়েককে ফের পুলিশে তলব

ডেস্ক রিপোর্ট : ভারতের বিতর্কিত ইসলামি বক্তা জাকির নায়েককে দুই দিনের ব্যবধানে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আবারো তলব করেছে মালয়েশিয়ার পুলিশ।

দেশটির সিআইডির পরিচালক দাতুক হুজির মোহাম্মদ জানান, ধর্মীয় সম্প্রীতি নষ্ট করার উদ্দেশ্যে উস্কানিমূলক বক্তব্য দেয়ার অভিযোগে তার জবানবন্দি নেয়া হবে। এর আগে, শুক্রবারও একই অভিযোগে জাকির নায়েককে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়।

সম্প্রতি একটি অনুষ্ঠানে জাকির নায়েক বলেন, ভারতের সংখ্যালঘু মুসলমানদের চেয়ে মালয়েশিয়ার সংখ্যালঘু হিন্দুরা ১০০ গুণ বেশি অধিকার ভোগ করছেন। এ সময়, তিনি প্রশ্ন তোলেন মালয়েশিয়ার হিন্দুরা ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি নাকি মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী মাহাথির মোহাম্মদের প্রতি বেশি বিশ্বস্ত। নিজের বক্তব্যের এক পর্যায়ে তিনি ভারতীয় এবং চীনাদের নিজ দেশে ফিরে যাওয়ার আহ্বান জানান।

এরপর বর্ণবাদী রাজনীতি করার অভিযোগে মালয়েশিয়ায় জাকির নায়েকের স্থায়ীভাবে বসবাসের অধিকার বাতিলের হুমকি দেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী মাহাথির মোহাম্মদ।

রবিবার কুয়ালালামপুর কনভেনশন সেন্টারে ওয়ার্ল্ড স্ট্যাটিসটিকস কংগ্রেস এর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে মাহাথির মোহাম্মদ বলেন, ‘জাকির নায়েক মালয়েশিয়ায় রাজনৈতিক বক্তব্য দিয়ে সীমা অতিক্রম করেছেন।’

মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘আমি জানি না কে তাকে মালয়েশিয়ায় স্থায়ীভাবে বসবাসের মর্যাদা দিয়েছেন। তবে, রাজনীতি থেকে তার দূরে থাকা উচিত।

তিনি প্রচার করতে পারেন, ইসলামের প্রচার করতে পারেন এবং আমরা তাকে থামাতে যাচ্ছি না। কিন্তু, তাকে অবশ্যই রাজনীতি নিয়ে কথা বলা বন্ধ করতে হবে। চীনা এবং ভারতীয়দের নিজ দেশে ফিরে যেতে বলাটা রাজনৈতিক।‘ তিনি বর্ণবাদী মানসিকতাকে উসকে দিচ্ছেন বলেও মন্তব্য করেন মাহাথির মোহাম্মদ।

মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘মালয়েশিয়ার আইনের শাসন আছে এবং আমরা এটা চর্চা করব।‘ জাকির নায়েক বর্ণবাদী অনুভূতিকে উসকে দিচ্ছেন। তার এ ধরনের মন্তব্যে কোনো উত্তেজনা সৃষ্টি হচ্ছে কি না তা পুলিশ অবশ্যই খতিয়ে দেখবে বলেও জানান মাহাথির।

অতীতে জাকির নায়েকের প্রতি বেশ কয়েকবার নিজের সমর্থন জানালেও এবারই প্রথম কঠোর ভাষায় মন্তব্য করলেন মাহাথিত মোহাম্মদ।

এদিকে, জাকির নায়েকের বক্তব্য দেয়ার ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে মালয়েশিয়ার অন্তত ৭টি রাজ্য।

এর আগে, ভারতের আদালতে অর্থপাচার এবং ধর্মীয় বিদ্বেষ ছড়ানোর মধ্য দিয়ে জিহাদি কার্যক্রমে উদ্বুদ্ধ করার অভিযোগ রয়েছে জাকির নায়েকের বিরুদ্ধে। জাকির নায়েক মালয়েশিয়ায় স্থায়ীভাবে বসবাসের অনুমতি পাওয়ার পর ২০১৮ সালে তাকে ভারতে ফেরত পাঠানোর আনুষ্ঠানিক আবেদন করা হয় দিল্লির পক্ষ থেকে। তখন মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী এ ব্যাপারে অনিচ্ছা প্রকাশ করেছিলেন।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত