প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

পাঁচ দেশে প্রবাসী নারী শ্রমিকের মৃত্যুর ঘটনা সবচেয়ে বেশি

ডেস্ক রিপোর্ট  : প্রবাসে উদ্বেগজনক হারে বেড়েছে নারী শ্রমিকের মৃত্যুর সংখ্যা। গত ১৫ বছরে প্রবাসে মৃত্যু হয়েছে তিন হাজার ৮০০ নারী শ্রমিকের। সৌদি আরব, জর্ডান, লেবানন, ওমান ও আরব আমিরাত-এই পাঁচ দেশে নারী শ্রমিকের মৃত্যুর ঘটনা বেশি। মধ্যবয়সে কেন লাশ হয়ে ফিরতে হচ্ছে-বিষয়টি ক্ষতিয়ে দেখার আহ্বান বিশেষজ্ঞদের। প্রবাসী কল্যাণ সচিব রনক জাহান আরটিভিকে জানান, সরকার বিষয়টিতে গুরুত্বের সঙ্গে দেখছে।

প্রতিদিন বাড়ছে প্রবাসীদের লাশের সংখ্যা। নিজেও যেমন মরছেন তেমনি মারছেন পরিবারের স্বপ্নগুলো। বিভিন্ন দেশ থেকে প্রতিদিন গড়ে ১৫টি লাশ আসছে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে।

গেল ১০ বছরে প্রবাসী শ্রমিকের মধ্যে উদ্বেগজনক হারে বেড়েছে নারী কর্মীর মৃত্যুর সংখ্যা। সরকারি এক পরিসংখ্যানে দেখা গেছে, ২০০৫ সাল থেকে এ পর্যন্ত তিন হাজার ৭৯৩ জন নারী শ্রমিক প্রবাসে মারা গেছেন। গেল ২০১৬ সাল থেকে চলতি বছরের জুন মাস পর্যন্ত অর্থাৎ সাড়ে তিন বছরে মৃত্যু হয়েছে মোট ৩৩১ জনের।

আত্মহত্যা, দুর্ঘটনা, স্ট্রোকসহ নানা কারণে ২০১৬ সালে নারীকর্মী মারা গেছে মোট ৫৭ জন। ২০১৭ সালে মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়ায় ১০২ জনে। গেল বছর সে সংখ্যা ছিল ১১২ জন। আর চলতি বছরের জুন মাস পর্যন্ত ৬০ জনের লাশ এসেছে দেশে।

মূলত সৌদি আরব, জর্ডান, লেবানন, ওমান ও আরব আমিরাত-এই পাঁচ দেশে প্রবাসী নারী শ্রমিকের মৃত্যুর ঘটনা সবচেয়ে বেশি।

প্রবাসে নারী শ্রমিকদের কর্মপরিবেশের অভাব রয়েছে এবং এ ব্যাপারে রাষ্ট্রের অনেক কিছুই করার থাকলেও সেটি যথাযথভাবে করা হচ্ছে না বলেও মনে করেন সংশ্লিষ্টরা।

প্রতিবছর কেন এতো নারী শ্রমিককে লাশ হয়ে দেশে ফিরতে হচ্ছে? নারী শ্রমিকদের বিষয়ে সরকার কী ধরনের পদক্ষেপ নিচ্ছে? এমন প্রশ্নের জবাবসহ নারী শ্রমিকের কর্মদক্ষতা উন্নয়ন এবং কাজের পরিবেশ বুঝেই শ্রমিক পাঠাতে সরকার কাজ করছে বলে জানান প্রবাসী কল্যাণ সচিব রনক জাহান।

উৎসঃ আরটিভি
প্রতি মুহুর্তের খবর পেতে এখা

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত