প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষক নিয়োগ ও পদোন্নতি নিয়োগ নীতিমালা নিয়ে কাজ করছে বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশন

বেলাল হোসেন : পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকদের অধ্যাপক হতে ১২টি প্রকাশনা থাকতে হবে। প্রভাষক থেকে সহকারী অধ্যাপক হতে তিন টি প্রকাশনা থাকতে হবে। পিএইচডি না থাকলে অধ্যাপক হতে হবে ২১ বছর শিক্ষকতা করে। পিএইচডি থাকলে ১২ বছরে অধ্যাপক হতে পারবেন। এমন সব নিয়ম রেখে শিগগিরই পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক নিয়োগে সমন্বিত নীতিমালা চূড়ান্ত করতে যাচ্ছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়। ইনডিপেন্ডেন্ট টিভি

পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষক নিয়োগ ও পদোন্নতির প্রক্রিয়া নিয়ে আছে নানা সমালোচনা। এই প্রেক্ষাপটে সব বিশ্ববিদ্যালয়ে সমন্বিত শিক্ষক নিয়োগ নীতিমালা নিয়ে কাজ করছে বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশন।ইতোমধ্যে বেশ কয়েকবার বৈঠকও হয়েছে উপাচার্যদের সঙ্গে।

খসড়া নীতিমালায় লিখিত পরীক্ষা, ডামি ক্লাস এবং মৌখিক পরীক্ষার মাধ্যমে শিক্ষক নিয়োগের সুপারিশ করা হয়েছে। এছাড়া প্রভাষক থেকে সহকারী অধ্যাপক হতে থাকতে হবে তিনটি প্রকাশনা। চলতি মাসে নীতিমালা চূড়ান্ত করতে সভা করবে শিক্ষা মন্ত্রণালয়।
পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে যোগ্য শিক্ষক নিয়োগের একটি সমণ্বিত নীতিমালা তৈরির কাজ গত তিন বছর ধরে ইউজিসি মঞ্জুরি কমিশন করলেও এখনও চূড়ান্ত হয়নি। মানসম্মত উচ্চশিক্ষা নিশ্চিতে সব পক্ষের মতামত নিয়ে নীতিমালাটি দ্রুত চুড়ান্ত করার আহ্বান শিক্ষাবিদদের।

বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতি বলছে, লিখিত পরীক্ষা দিয়ে শিক্ষক নিয়োগ পুরোনো পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রয়োজন নেই। এটি নতুন বিশ্ববিদ্যালয়গুলো প্রয়োগ করতে পারে।

শিক্ষাবিদেরা বলছেন, শিক্ষক নিয়োগ নীতিমালা করার পাশাপাশি শিক্ষকদের গবেষণার জন্য উপযুক্ত পরিবেশ তৈরি করতে হবে। সম্পাদনা : অশোকেশ রায়

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত