প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

শুধু ছেলে-মেয়ের জানডা লইয়া বাঁইচ্চা আইছি, বললেন বস্তিবাসী রিপন

ডেস্ক রিপোর্ট : রাজধানী মিরপুরের রূপনগর এলাকার চলন্তিকা বস্তিতে আজ শুক্রবার সন্ধ্যায় ভয়াবহ আগুনে পুড়ে গেছে অন্তত দুই হাজার ঘর। সেই বস্তিরই একজন রিপন হোসেন। তাঁর চোখে মুখে বস্তি পোড়ার আতঙ্ক। সেই জ্বলন্ত আতঙ্ক থেকে বেরিয়ে এসে রিপন এক নিঃশ্বাসে বলেন, ‘ভাই, শুধু ছেলে-মেয়ের জানডা লাইয়া বাঁইচ্চা আইছি। আর কিছু নিবার পারি নাই।’ এনটিভি

 

রিপন আরো বলেন, ‘চারদিক আগুন দেইখ্যা দিছি দৌড়। হাতের কাছে যা পাইছি তাই নিয়ে বাইর হইয়া আসছি। আমি রিকশা চালাই। রিকশা চালিয়ে পেট চালাই। অহন আমি কি করুম কিছুই জানি না। আমার সব শেষ ভাই।’

 

রিপনের বাড়ি কিশোরগঞ্জের পাকুন্দিয়া উপজেলায়। ১৩ বছর ধরে চলন্তিকা বস্তিতে থাকতেন তিনি। অস্তিত্বের সঙ্গে মিশে যাওয়া বস্তির প্রতিটি ধুলিকণাই যেন তাঁর আপন। সেই বস্তিতে নিমিষেই যেন পুড়ে ছাই হয়ে গেল রিপনের আশা ভরসা। তাঁর পাঁচ বছরের এক ছেলে শাওন ও তিন বছরের এক মেয়ে ফাতেমা। পরিবার নিয়ে খোলা আকাশের নিচে এখন অসহায় এ পরিবারটি। জানে না এর পর কোথায় তাদের মাথা গোঁজার ঠাঁই হবে।

 

এদিকে অগ্নিকাণ্ডের খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে ছুটে যান ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের মেয়র আতিকুল ইসলাম ও স্থানীয় সংসদ সদস্য আলহাজ ইলিয়াস উদ্দিন মোল্লাহ।

 

মেয়র আতিকুল জানান, এই বস্তিতে ২০ থেকে ২২ হাজার ঘর ছিল। এর মধ্যে অন্তত দুই হাজার ঘর পুড়ে গেছে। আগুনের ঘটনায় যারা আহত হয়েছে তাদের চিকিৎসা ব্যয় সিটি করপোরেশন নিবে। তবে নিহতের ব্যাপারে আমরা এখনো নিশ্চিত নই। তাৎক্ষণিকভাবে সিটি করপোরেশনকে নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে যাতে বস্তিবাসীর খাবার ও থাকার ব্যবস্থা করে। এই ঘটনা কোনো ধরনের নাশকতা ছিল কিনা তা তদন্ত করে দেখা হবে।

 

অন্যদিকে সাংসদ ইলিয়াস উদ্দিন মোল্লাহ বলেন, আগুনে ঘর হারানো লোকদের থাকার জন্য আজ রাতে স্থানীয় শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ব্যবস্থা করা হবে।

 

ফায়ার সার্ভিস অ্যান্ড সিভিল ডিফেন্সের কেন্দ্রীয় নিয়ন্ত্রণ কক্ষে দায়িত্বরত কর্মকর্তা এরশাদ হোসেন জানান, শুক্রবার সন্ধ্যা সোয়া ৭টার দিকে আল আরাবিয়া মসজিদের পশ্চিম পাশের চলন্তিকা বস্তিতে আগুন লাগে। খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের ১৯টি ইউনিটের শতাধিক কর্মী ঘটনাস্থলে গিয়ে আগুন নেভানোর চেষ্টা করছেন। আগুন এখন অনেকটা নিয়ন্ত্রণে।

 

এরশাদ হোসেন জানান, আগুন লাগার সঙ্গে সঙ্গে এলাকাবাসী এগিয়ে যান। তারাও আগুন নেভানোর চেষ্টা করেন। এ ছাড়া পুলিশ সদস্যরা ফায়ার সার্ভিসের কর্মকর্তাদের সঙ্গে কাজ করছেন। তবে এখন পর্যন্ত আগুন লাগার কারণ জানা যায়নি।

 

এদিকে বাতাসের তীব্রতায় আগুন ক্রমশ ছড়িয়ে পড়ে। বস্তির পশ্চিম পাশের আগুন নিয়ন্ত্রণে এলেও পূর্ব পাশে আগুন ক্রমশ ছড়িয়ে পড়ে। বস্তির পাশে আল আরাবিয়া নামের একটি মসজিদ রয়েছে। সেই মসজিদের সাততলা পর্যন্ত আগুন ছড়িয়ে পড়ে। সেখানে কিছু লোক আটকা পড়েন। পরে তাঁদের উদ্ধার করা হয়।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত