প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

টাকা ছাড়া অন্য কিছুর বিনিময়ে নেইমারকে ছাড়তে রাজি নয় পিএসজি

স্পোর্টস ডেস্ক : ব্রাজিলের ফুটবল সুপারস্টার নেইমারের পুনরায় বার্সেলোনায় যাওয়ার ঘটনাটা গত মঙ্গলবারই ঘটে যেতো। এদিনই আনুষ্ঠানিকভাবে নেইমারের দলবদল নিয়ে প্যারিসে আলোচনায় বসেছিল দুই ক্লাবের দুটি প্রতিনিধি দল। তবে দিন শেষে বার্সা সমর্থকেরা হতাশই হয়েছেন। সারাদিন আলোচনা করেও বার্সার কাছে নেইমারকে বিক্রি করার ব্যাপারে আগ্রহ দেখায়নি পিএসজি। বার্সার একটি প্রস্তাবও পছন্দ হয়নি তাদের।

পিএসজি প্রথম থেকেই সাফ জানিয়েছে, নেইমারের বিনিময়ে বার্সেলোনার কাছ থেকে তারা শুধুই অর্থ চায়, আর কিছু না। যে খেলোয়াড়কে মাত্র দুই বছর আগেও ২২ কোটি ২০ লাখ ইউরো দিয়ে দলে এনেছিল, তাকে বিক্রি করার সময়েও মোটামুটি একই পরিমাণ অর্থ চাচ্ছে পিএসজি। পিএসজির এই চাহিদা বার্সেলোনা শুনেও যেন শুনছে না। টাকা কম দিতে চুক্তির মধ্যে এক বা একাধিক খেলোয়াড় যুক্ত করতে চাচ্ছে দলটি। এ প্রস্তাব নিয়েই গতকাল প্যারিসে গিয়েছিলেন বার্সেলোনার দুই পরিচালক। পিএসজির প্রতিনিধি দলের নেতৃত্বে ছিলেন সদ্য নিযুক্ত টেকনিক্যাল ডিরেক্টর লিওনার্দো।

বার্সেলোনা প্রথমে ১০ কোটি ইউরোর সঙ্গে ফিলিপ কুতিনহো ও ইভান রাকিতিচকে দিতে চেয়েছে। আলোচনার বিভিন্ন সময়ে উঠে এসেছে বার্সার ফরাসি তারকা ওসমানে দেম্বেলে, স্যামুয়েল উমতিতি ও রাইটব্যাক নেলসন সেমেদোর নামও। তবে চুক্তিতে কোনো খেলোয়াড় অন্তর্ভুক্ত করার ব্যাপারে আগ্রহ দেখায়নি পিএসজি। তাদের পুরো অর্থই লাগবে।

আর এখানে এসেই ফেঁসে গেছে বার্সা। আয়াক্স থেকে ৭৫ মিলিয়ন ইউরোয় ফ্রেঙ্কি ডি ইয়ং ও অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদ থেকে ১২০ মিলিয়ন ইউরোয় আতোয়াঁন গ্রিজমানকে আনার পর এখন নেইমারের জন্যও যদি ২০০ মিলিয়ন ইউরোর বেশি খরচ করতে হয় তাহলে উয়েফার ফেয়ার প্লে পলিসির বেড়াজালে আটকে যাবে বার্সা। ওদিকে অ্যাটলেটিকো থেকে গ্রিজমানকে আনতে গিয়েও ঝামেলা পাকিয়ে রেখেছে কাতালান ক্লাবটি। যে কারণে ইনিয়ে-বিনিয়ে তারা বিভিন্ন খেলোয়াড়কে চুক্তির মধ্যে অন্তর্ভুক্ত করতে চাইছে।

বার্সার এ আবেদনে পিএসজিও সাড়া দিচ্ছে না। এমনিতেই মার্কো ভেরাত্তি, জাভি সিমন্স, নেইমার, ফ্রেঙ্কি ডি ইয়ংয়ের দলবদল সংক্রান্ত বিভিন্ন বিষয়ে বার্সেলোনার প্রতি একদম বিষিয়ে উঠেছে পিএসজির মন। দুই ক্লাবের সম্পর্ক একদম সাপে-নেউলে হয়েছে। তাই বার্সেলোনার প্রস্তাবে এতো সহজে রাজি হচ্ছে না তারা। গতকাল বার্সা-পিএসজি বৈঠকে তাই কোনো লাভই হয়নি।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত